মঙ্গলবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৯

অন্ধ্রে এনআরসি করতে দেব না: জগনমোহন রেড্ডি

পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসির বিরুদ্ধে সবার আগে সরব হয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর একে একে অন্যান্য রাজ্যের অ-বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীরাও এনআরসি না করার ব্যাপারেঘো ষণা দিতে শুরু করেছেন। ইতিমধ্যে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং, মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট, কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার, ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক তাঁদের রাজ্যে এনআরসি করতে দেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। এবার এনআরসি না করার তালিকায় নতুন করে যোগ হল অন্ধ্রপ্রদেশ। 

সোমবার উন্নয়ন কর্মসূচি নিয়ে কাডাপায় এক জনসভায় অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ওয়াইএস জগনমোহন রেড্ডি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, তাঁরা এনআরসির বিরুদ্ধে। তাই অন্ধ্রপ্রদেশে এনআরসি চালু করার কোনও প্রশ্নই ওঠে না। কোনও পরিস্থিতিতেই সে রাজ্যে এনআরসি করতে দেবেন না বলে জানিয়ে দেন জগনমোহন রেড্ডি। এদিন তিনি বলেন, ‘কাডাপায় আসার পর বহু সংখ্যালঘু গোষ্ঠী আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এবং অনুরোধ করে,  এনআরসির ব্যাপারে আমি যেন একটা বিবৃতি দিই। আমি তাদেরকে পরিষ্কার বলে দিয়েছি, অন্ধ্র সরকার কোনোভাবেই এনআরসিকে সমর্থন করবে না।

মুখ্যমন্ত্রী রেড্ডি এ ব্যাপারে আলোচনার জন্য ডেকে পাঠান উপ-মুখ্যমন্ত্রী আমজাদ বাশাকে, যিনি কয়েকদিন আগে এনআরসি না করার ব্যাপারে বিবৃতি দিয়েছিলেন। আমজাদ বাশার সঙ্গে আলোচনার পর তিনি সংখ্যালঘুদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমজাদ বাশা এনআরসি নিয়ে বিবৃতি দেওয়ার আগে  আমার সঙ্গে আলোচনা করেছিলেন। আমি পূর্ণ সমর্থন করেছি। অন্ধ্র সরকার এর প্রতি দায়বদ্ধ। আমরা এনআরসির বিরুদ্ধে। তাই অন্ধ্রে এনআরসি করার পক্ষে সমর্থনের কোনও প্রশ্নই ওঠে না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only