শনিবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

ভাঙা মেলা রম রমিয়ে চলছে পৌষ মেলায়: গো ব্যাক উপাচার্যকে



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক, শান্তিনিকেতন: ভাঙা মেলা রম রমিয়ে চলছে পৌষ মেলায়। যদিও, বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ মেলার বিদ্যুৎ ও জল সংযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। বিক্রেতারা নিজস্ব হ্যাজাক লাইট নিয়েই চালাচ্ছে বিক্রিবাটা। বিশ্বভারতীর তরফে মেলা তোলার চেষ্টা করা হলে, স্থানীয় ব্যবসায়ীরা “গো ব্যাক” ধ্বনি দিয়ে প্রায় আধ ঘন্টা ধরে উপাচার্য বিদ্যুৎ কুমার চক্রবর্তীকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান।   জানা গেছে, প্রায় ৫০০ বিক্রেতা এখনও ওঠে নি। বড় বড় বিক্রেতারা উঠে গেলেও, অনেকেই বিক্রিবাটা চালায়, অস্বস্তিতে বিশ্বভারতী। এব্যাপারে বিশ্বভারতী জন সংযোগ আধিকারিক অনির্বান সরকার “হ্যালো” বলে পরিচয় পেয়ে প্রথমে কল হোল্ডে রাখেন, তারপর কেটে দেন।

এব্যাপারে, বোলপুর ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক সুনীল সিং বলেন, একদিন বৃষ্টি হওয়ায় আমাদের বিক্রি বাটা হয় নি। আমরা বার অনুরোধ করা সত্বেও কর্তৃপক্ষ তাদের কথা না রেখে বিদ্যুৎ ও জলের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। আমাদের তুলতে এলে আমরা প্রতিরোধ করি। এত ভাড়া দিয়ে  তিনদিনের ব্যবসায় আমাদের পোষাবে কি করে? তাই আমাদের আরও দুদিন ভাঙা মেলা চবে।  এদিকে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ আগেই ঘোষণা করে, মেলা চারদিনের মধ্যে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে না উঠলে সিকিউরিটি মানি দেওয়া হবে না।  তার প্রেক্ষিতে সুনীল সিং বলেন, আমাদের সিকিউরিটি মানি আঁটকালে, আদালতের দ্বারস্থ হব। অন্যদিকে, পরিবেশবিদ সুভাষ দত্ত মেলা পর্যবেক্ষণ কালে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ তাঁর সাথে কোন যোগাযোগ করে নি, বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এদিকে মেলায় বিদ্যুত ও পানীয় জল না থাকায় পরিবেশ আরও নোংরা হবে বলে আশঙ্কা অনেকের।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only