রবিবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯

ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন হেমন্ত সোরেন, বিরোধী নেতাদের ভিড়

শপথ  নেওয়ার সময়  হেমন্ত সোরেন
পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক : ঝাড়খণ্ডে ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম)-এর কার্যকরী সভাপতি হেমন্ত সোরেন (৪৪) মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন। তিনি রাজ্যটিতে ১১ তম মুখ্যমন্ত্রী হলেন। আজ (রোববার) রাঁচীর মোরহাবাদী ময়দানে সুবিশাল মঞ্চে তাঁকে শপথবাক্য পাঠ করান রাজ্যপাল দ্রৌপদী মুর্মু। হেমন্ত সোরেন জেএমএম-কংগ্রেস-আরজেডি জোট সরকারের মুখ্যমন্ত্রী হলেন। 

হেমন্ত এনিয়ে দু’বার ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হলেন। এর আগে ২০১৩ সালে তিনি রাজ্যটিতে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন। হেমন্ত সোরেনের বাবা শিবু সোরেনও  ঝাড়খণ্ডে তিন বার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন। 
আজ একইসঙ্গে পাকুড়ের কংগ্রেস বিধায়ক আলমগীর আলম, হেমন্ত সোরেন সরকারের মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন। ৪ বারের বিধায়ক আলমগীর আলম কংগ্রেস বিধায়ক দলের নেতা  নির্বাচিত হয়েছেন। ২০১৪ সালেও দল তাঁকে বিধানসভার নেতা নির্বাচিত করেছিল। এরআগে ২০০৬ সালে তিনি ঝাড়খণ্ড বিধানসভার স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার পরে তিনি সেই দায়িত্বও সামলেছেন। আজ রাজ্য কংগ্রেস সভাপতি রামেশ্বর ওঁরাও মন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছেন। অন্যদিকে, আরজেডি বিধায়ক সত্যানন্দ ভোকতা মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন।
শপথগ্রহণ অনুষ্ঠােনকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন নেতানেত্রীরা উপস্থিত ছিলেন
আজ হেমন্ত সোরেনের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানকে ঘিরে বিজেপিবিরোধী নেতাদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয় বিষয়। শপথ অনুষ্ঠানে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট, ছত্তিসগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল, কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি রাহুল গান্ধী, আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব,  আম আদমি পার্টির (আপ) এমপি সঞ্জয় সিং,  ডিএমকে নেতা এমকে স্ট্যালিন, ডিএমকে নেত্রী কানিমোঝি, বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জিতন রাম মাঝি, সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তারিক আনোয়ার, সিপিআইয়ের সাধারণ সম্পাদক ডি রাজা, সিপিআই(এম)-এর সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি উপস্থিত ছিলেন। 

৮১ আসন বিশিষ্ট ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনে এরআগে হিন্দুত্ববাদী  বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট ক্ষমতাসীন ছিল। কিন্তু এবারের নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ থেকে শুরু করে রাজ্যটিতে বিজেপি’র ফায়ারব্র্যান্ড নেতারা মাঠে নামালেও তাঁরা ব্যর্থ হয়েছেন। জেএমএম-কংগ্রেস-আরজেডি জোট ৪৭ আসনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করেছে। অন্যদিকে, বিজেপি এবার মাত্র ২৫ আসনে জয়ী হওয়ায় তাঁরা ক্ষমতা হারিয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only