রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

‘ধর্ষণ হয়নি তো, যখন হবে তখন দেখা যাবে’ উন্নাওয়ে নির্যাতিতাকে উপদেশ পুলিশের



পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: ফের সংবাদ শিরোনামে উন্নাও। এবার ওই এলাকার এক থানার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ এক মহিলার। তাঁর দাবি, ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ থানায় জানাতে গিয়েছিলেন। কিন্তু পুলিশ আধিকারিক মহিলাকে সটান জানিয়ে দেন, ‘ধর্ষণ হয়নি তো, যখন হবে তখন দেখা যাবে’।

সদ্য দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে প্রাণ হারিয়েছেন উন্নাওয়ের এক নির্যাতিতা। তেলেঙ্গানা থেকে উন্নাও-এর ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ। ক্ষোভের আঁচ এসে পড়েছে সংসদেও। কিন্তু এখনও পুলিশ প্রশাসন নির্বিকার। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা তো দূর, এমনকী মহিলার অভিযোগও নিতে চাননি পুলিশ। এমনটি জানান অভিযোগকারিনীর। ঠিক কী হয়েছে ঘটনাটি? ইন্ডিয়া টুডে-এর কাছে উন্নাওয়ের সিন্দুপুর গ্রামের ওই মহিলা  অভিযোগ করেন, ‘ওষুধ কিনতে যাচ্ছিলাম। রাম মিলন, গুড্ডু আর রামবাবু নামে ৩ যুবক তাঁর পথ আটকায়। পোশাক ধরে টানাটানি শুরু করে। এমনকী আমাকে ধর্ষণেরও চেষ্টা করে’। এরপরই তিনি দাবি করেন, স্থানীয় বিহার (রাজ্য নয়) থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে পুলিশ তাঁকে পরামর্শ দেন, ‘ধর্ষণ হয়নি তো, যখন হবে তখন দেখা যাবে’। তাঁর দাবি, উন্নাও এবং বিহার থানায় ৩ মাস ধরে ঘুরেছেন। কিন্তু কেউ অভিযোগ নেয়নি।

ওই মহিলার আরও দাবি করেন, সেদিন রাতের ওই ঘটনার পর ১০৯০ তে ফোন করি। সেখান থেকে  বলা হয় ১০০ ডায়াল করতে। উন্নাও থানায় বিষয়টি জানাই। সাহায্যর বদলে যে জায়গায় ঘটনাটি ঘটে, সেই থানাতে অভিযোগ দায়ের করতে বলেন আইনের রক্ষকরা। অভিযুক্তরা প্রতিদিন বাড়ি গিয়ে অভিযোগকারিনীকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। থানায় সেই অভিযোগের কথাও জানাতে যান। কিন্তু তাকে বলা হয়, এ বিষয়ে আমরা কিছুই করতে পারব না। উন্নাওয়ের একজন পুলিশ অফিসারের সঙ্গে দেখা করি। তিনি ফের আমাকে পরামর্শ দেন বিহার থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়েক করার। গত ৩ মাস যাবৎ এটাই হয়ে চলেছে।

সংবাদমাধ্যমের তরফে যোগাযোগ করা হয় আইজি এসকে ভগতের সঙ্গে। তিনি জানান, ‘সকাল থেকে আমি থানায় বসে। তাঁর কাছে কেউ আসেনি।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only