রবিবার, ১ ডিসেম্বর, ২০১৯

দুবরাজপুরে গোষ্ঠী সংঘর্ষের ঘটনায় এক নাবালকের মৃত্যু


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক, বীরভূম: এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষের ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে এক নাবালকের। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের দুবরাজপুর থানার চিৎপুর গ্রাম। বোমা ও গুলিতে দুজন মহিলা সহ আহত ৮ জন জখম হয়। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শনিবার রাতে আহতদের মধ্যে থাকা ওই নাবালকের মৃত্যু হয়। ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ এবং ধৃতদের  পুলিশি হেফাজত এর নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা  গিয়েছে মৃত নাবালক হল নুরুদ্দিন খান (১৭)। হামলার ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছে সুর মাহমুদ খান এবং মুস্তাক খান ধৃতদের দুবরাজপুর আদালতে তোলা হলে বিচারক চার দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। এক জখম ব্যক্তির বাবা খলিল খান কুড়ি জনের বিরুদ্ধে দুবরাজপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

প্রসঙ্গত দুবরাজপুর থানার চিৎপুর গ্রামের দুই গোষ্ঠীর  মধ্যে দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্ব এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে। গ্রামের ১০০ দিনের কাজ, অনান্য উন্নয়ন মূলক কাজ কে ঘিরে দীর্ঘদিনের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব রয়েছে, যা মেটাতে গত শুক্রবার গ্রামে বসে সালিশি সভা। সেই সময় দু-পক্ষের মধ্যে বচসা শুরু হয়ে যায়। বচসা থেকে শুরু হয় হাতাহাতি। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে চলে গুলি। ঘটনায় আহত হয়েছে  ২ জন মহিলা সহ ৮ জন। 

ঘটনার খবর পেয়ে দুবরাজপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে দুবরাজপুর গ্রামীণ হাসপাতালে। পরে কয়েকজনকে স্থানান্তরিত করা হয় সিউড়ি সুপার স্পেশালিটিতে। এদের মধ্যে নুরুদ্দিন খান,  আলি হোসেন খান ও মনির খানকে বর্ধমান স্থানান্তরিত করা হয়।  সেখানেই নুরুদ্দিনের মৃত্যু হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only