সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

সিএএ, এনআরসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদে ১৯ ডিসেম্বর রাস্তায় নামছে ফেসবুক গ্রুপ ‌'নো এনআরসি মুভমেন্ট'-এর সদস্যরা


পুবের কলম প্রতিবেদক: এনআরসি ও নাগরিক সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে চলছে বিক্ষোভ, প্রতিবাদ। একই কারণে পূর্বসূচি অনুযায়ী এবার পথে নামতে চলেছে 'নো এনআরসি মুভমেন্ট' ফেসবুক গ্রুপের সদস্যরা।আগামী ১৯ ডিসেম্বর কলকাতার মৌলালির রামলিলা ময়দান থেকে এক মহামিছিলের ডাক দিয়েছে এই গ্রুপটি।
উল্লেখ্য,  'নো এনআরসি মুভমেন্ট'-এর সদস্যরা যে  সোশ্যাল সাইটে সংঘবদ্ধ হচ্ছে তা আগেই পুবের কলম-এ প্রকাশ হয়েছিল। এনআরসি-ক্যাব যে একদিন বাংলার প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে তা আগেই বুঝেছিল 'নো এনআরসি মুভমেন্ট'-এর কর্মকর্তারা।তাই জুন মাসের শেষ দিকে কয়েকজন সমাজকর্মী প্রতিরোধ গড়তে সামাজিক মাধ্যমে তৈরি করেন 'নো এনআরসি মুভমেন্ট'।অসমে নাগরিকপঞ্জীর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর জনস্রোতের মতো গ্রুপে সদস্য বাড়তে থাকে। অক্টোবরের শুরুতেই সদস্য সংখ্যা এক লক্ষ পার হয়ে যায়। এখন এর সদস্য সংখ্যা এক লক্ষ কুড়ি হাজার।
এঁরা নিছকই বাঙালি।এঁদের মধ্যে জাত নেই, ধর্ম নেই, অন্য কোনওরকম মতবিরোধ, মতপার্থক্য নেই। আছে কেবল একটাই পরিচয়, এঁরা সকলেই বাঙালি। প্রত্যেকেই আতঙ্কে রয়েছেন যে, দেশজুড়ে বাঙালিদের উপর আক্রমণের চেষ্টা করা হচ্ছে। হিন্দু, মুসলিম সকলের মনে এই প্রশ্নটা তৈরি হয়েছে।
বুদ্ধিজীবী, বিদ্বজ্জন, শিক্ষক, আইনজীবী, তরুণ সমাজ---কে নেই এই গ্রুপে? গেরুয়া আশ্বাসকে বিশ্বাস করছেন না কেউই। সচেতনভাবে বাঙালিরদের মাঝখানে হিন্দু-মুসলমান বিভাজন টেনে ফায়দা তোলার চেষ্টা চলছে, তা তাঁদের কাছে স্পষ্ট। সে কারণেই এই গ্রুপের কোনও রং নেই। হিন্দু বাঙালিদের সঙ্গে সঙ্গেই হাজারে হাজারে মুসলিম বাঙালিও।
ফেসবুকের বাইরে বিভিন্ন জেলায়, ব্লকে সংগঠন করে শেষ কয়েক মাস ধরে সদস্যরা গণজাগরণ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে নাগরিকপঞ্জী বিরোধী যুক্ত মঞ্চের মাধ্যমে জনমত গড়ে তুলেছে।এই মুহূর্তে এটা শুধু বাংলারই নয় ভারতের অন্যতম এনআরসি, এনপিআর ও সিএএ বিরোধী সংগঠন।গণজাগরণ অভিযানের চূড়ান্ত পরিণতিতে আগামী ১৯ ডিসেম্বর কলকাতার মৌলালির রামলিলা ময়দান থেকে এক মহামিছিলের ডাক দিয়েছে সংগঠনের কর্মকর্তারা। সামাজিক মাধ্যমের প্রতিবাদ বাংলার এক নতুন ইতিহাসের সাক্ষী হতে চলেছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only