বৃহস্পতিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৯

রামচন্দ্র গুহের হেনস্থার প্রতিবাদে সরব বাংলার বিশিষ্টরা


বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা নাগাদ বেঙ্গালুরু শহরে প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ অধ্যাপক রামচন্দ্র গুহ এনআরসি ও সিএএ-এর প্রতিবাদ করছিলেন, সে সময় পুলিশ তাঁকে শারীরিক নির্যাতন করে এবং আটক করে। অধ্যাপক রামচন্দ্র গুহ একজন বরেণ্য ইতিহাসবিদ, সমাজতাত্ত্বিক, প্রখ্যাত লেখক। দেশজুড়ে চলছে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে তুমুল প্রতিবাদ। তাতেই তিনি শামিল হয়েছিলেন। তাঁর মতো একজন বরেণ্য ও বয়সে প্রবীণ ব্যক্তির এই হেনস্থায় ক্ষুব্ধ নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। 

কলকাতার বুদ্ধিজীবীরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। শঙ্খ ঘোষ, রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত, কবীর সুমন, ব্রাত্য বসু, সুবোধ সরকার, কল্যাণ রুদ্র, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, শাঁওলী মিত্র, শুভাপ্রসন্ন, জয়া মিত্র, শ্রীজাত, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, যোগেন চৌধুরী, অর্পিতা ঘোষ, মনোজ মিত্র. জয় গোস্বামী, নৃসিংহপ্রসাদ ভাদুড়ী প্রমুখ বিশিষ্টজন এর প্রতিবাদে একটি বিবৃতি দেন। তাতে তাঁরা জানান যে– ‘ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারে এক ধর্মান্ধ ফ্যাসিস্ট শক্তির উত্থান ঘটেছে। আমরা তাদের জনবিরোধী পদক্ষেপে উদ্বিগ্ন। দেশে আগুন জ্বালিয়ে তারা সাধারণ মানুষ– ছাত্র– লেখককর্মীদের উপর অত্যাচার চালাচ্ছে।’ বুদ্ধিজীবীদের এই বিবৃতি যে সংশোধিত নাগরিক আইনের বিরোধিতা করেই, সেটা স্পষ্ট। কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের জনবিরোধী কাজের নিন্দায় সরব হয়ে এদিন তাঁরা দেশের জনগণের কাছে আবেদন রাখেন, ‘সমস্ত মানুষের কাছে আমাদের আবেদন– রামচন্দ্র গুহ এবং অন্যান্যদের ওপর এই অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে শামিল হোন।’    

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only