বৃহস্পতিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৯

উইঘুর নিপীড়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার ওজিলের পাশে মাইক পম্পেও



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক লন্ডন: ইংল্যান্ডের ফুটবল ক্লাব আর্সেনালের খেলোয়াড় ও জার্মানির বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য মেসুত ওজিলের পাশে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করে দিলেন মার্কিন সেক্রেটারি অফ স্টেটস মাইক পম্পেও তিনি বলে দেন যেবেজিং কেবল অর্সেনালের খেলা সম্প্রচারের ওপর কাটছাঁট আরোপ করতে পারবে কিন্তু মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা লুকোতে পারবে না তুর্কি বংশোদ্ভ(ত জার্মানির এই মুসলমান ফুটবলার সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলমানদের নিপীড়ন করায় চিনকে তুলোধনা করেছেন গত সপ্তাহে টু্যইটারে করা এক পোস্টে উইঘুরদেরযোদ্ধা আখ্যায়িত করে তিনি বলেনতারা নিপীড়নকে রুখে দাঁড়াচ্ছে

পাশাপাশি এই নিপীড়নের ঘটনায় মুসলিম বিশ্বের নীরবতারও সমালোচনা করেন তিনি তারা (চিন সরকার) কুরআন পুড়িয়ে দিচ্ছে তারা মুসলিমদের মসজিদ বন্ধ করে দিচ্ছে তারা স্কুল বন্ধ করে দিচ্ছে তারা মুসলিমদের ধর্মীয় নেতাদের মেরে ফেলছে পুরুষদের জোর করে বন্দি শিবিরে আটকে রাখছে মহিলাদের জোর করে চিনা পুরুষদের সঙ্গে বিয়ে করতে বাধ্য করা হচ্ছে কিন্তু মুসলিম বিশ্ব নীরব তারা একটা কথাও বলছে না তারা তাদের (উইঘুরদের) ত্যাগ করেছে এবং পাশে দাঁড়াচ্ছে না তারা কি জানে না যেঅন্যায় করা আর অন্যায় সহ্য করা সমান জিনিস?’

এই ঘটনার প্রেক্ষাপটে রবিবার ম্যাঞ্চেস্টার সিটির বিপক্ষে আর্সেনালের প্রিমিয়ার লিগের খেলা সম্প্রচারের তালিকা থেকে বাদ দিয়েছে চিনের মালিকানাধীন সিসিটিভি এই সব কিছুর পর এক টু্যইটবার্তায় পম্পেও বলেন– ‘চিনের কমিউনিস্ট পার্টির প্রচারমাধ্যম পুরো মরশুমেই মেসুত ওজিল ও আর্সেনালের ওপর সেন্সর আরোপ করতে পারবে কিন্তু শেষপর্যন্ত সত্যের জয়ই হবে উইঘুর মুসলিমদের বিরুদ্ধে যে মানবাধিকার লঙ্ঘন তারা ঘটিয়েছেচিন সরকার সেটা মোটেও গোপন রাখতে পারবে না

রাষ্ট্রসংঘ ও মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলোর হিসাবে১০ থেকে ২০ লাখের মতো লোকযাদের অধিকাংশই উইঘুর মুসলিম তাদের অমানবিক অবস্থার মধ্যে আটক করে রাখা হয়েছে চিনে যদিও এটিকে সন্ত্রাস-বিরোধী অভিযান হিসেবে আখ্যায়িত করেতে চাইছে চিনা সরকার উইঘুরদের বিরুদ্ধে এই অসহ্য ও নিন্দনীয় নিপীড়নের ঘটনা সবসময়ই অস্বীকার করে আসছে বেজিং

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only