শনিবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০১৯

তৃণমূলকে হুশিয়ারী বিজেপি জেলা সভাপতির!

পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: বামপন্থীরা যখন বিপদ তারণ মণ্ডলকে বাড়িতে গিয়ে পিটিয়ে মেরে দিল, বাতাসপুরে চিত্ত মিত্রের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিল, অত্যাচার যখন চরমে উঠলো, তখন আমরা সিপিএমের ক্যাডারদের সাবধান করতে লাগলাম। প্রতিরোধ করতে লাগলাম। প্রতিরোধ করতে করতে এমন জায়গায় গেল, যে কমরেডরা ছোটাছুটি শুরু করেছিল। তার পর ডিএম এসপি এখানে এসে শান্তি কমিটি, শান্তি প্রক্রিয়া এসব করার জন্য সরকারীভাবে তৎপর হলো। তার পর থেকে বামপন্থীদের সাথে আমাদের আর কোন ঝামেলা হয় নি। গোটা ব্যাপারটা তৃণমূলকে স্মরণ করালাম। শাসকদল আমাদের মারলে, আমরা মারবো। এদিন বীরভূমের কোটাসুরে জনসভা থেকে একথা প্রকাশ্য মঞ্চ থেকে এভাবেই হুমকির সুরে কথা বললেন বিজেপির জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল। অবশ্য একটা মহল থেকে বলা হয়েছে সভা মঞ্চ থেকে, স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের হুঁশিয়ারি দিয়ে শ্যামাপদ বাবু বলেন, "সময় দেওয়া হোক যে যাকে পারে খুন করতে। খুন করে দেখিয়ে দেব। নাহলে খুন হব। বিগত দিনে বামপন্থীরা বীরভূমে অত্যাচার চালাত, মারধর করত, পুলিশ লেলিয়ে দিত। তারপর এই এলাকায় তরুণ, যুবকদের বলেছিলাম যদি বামপন্থী লাল কমরেডদের আটকানো না যায় তাহলে মানুষকে শান্তিতে বসবাস করতে দেবেনা। তারপর যখন কমরেডরা অত্যাচার চালাত আমরা প্ল্যানিং করে এক এক কমরেডকে ধরে ধরে হাত পা ভাঙা শুরু করলাম। তখন দেখি শান্তি মিছিলের আয়োজন। এখানে তৃণমূলের ছোট চ্যাংরা নেতাদের আমি স্মরণ করাতে চাই। যদি মনে করো বিজেপিকে মেরে ঘর ঢোকাবে আমি বলে দিচ্ছি দিন দেওয়া হোক, সময় দেওয়া হোক। যে যাকে পারে খুন করতে৷ খুন করে দেখিয়ে দেব, নাহলে আমরা খুন হব। এখানে বিজেপি দুর্বল নয়। যদিও, ফোন করলে গোটা বক্তব্য অস্বীকার করে তিনি। অনেকটাই নরম সুরে বলেন, খুনের কথা বলিনি। ওরা মারলে, আমরা মারবো বলেছি। আর বামপন্থীদের হাত পা ভাঙার কথা বলি নি। প্রতিরোধের কথা বলেছি।

বীরভূমের ময়ূরেশ্বরে কোটাসুরে  বিজেপির কার্যালয়ে হামলা চালানো হয়,  তৃণমূলের দুষ্কৃতীদের দ্বারা এই অভিযোগে বিজেপির শক্ত ঘাঁটি কোটাসুরে এদিন বিজেপির সভা ছিল। এদিন এই কোটাসুরে একটি জনসভা করে বিজেপির নেতা কর্মীরা। ছিলেন, বিজেপির জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল। সভার শেষে এসে যোগ দেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তিনি বলেন, শাসকদলের সাত বিধায়ক  রাস্তা দেখছেন। তাঁরা অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের সাথে ঘর করতে পারছেন না।  আরেকজন মন্ত্রী জঙ্গল মহলের প্রভাবশালী নেতা ছিলেন। আকারে ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিলাম।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only