শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯

ক্যাব নিয়ে ভারতকে সতর্ক করল আমেরিকা


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক, ওয়াশিংটন: সিটিজেন অ্যামেন্ডমেন্ট বিল অর্থাৎ ক্যাব-এর বিরোধীতায় দেশে কয়েকটি অংশ ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। আইনটির বিরোধীতা করে জ্বলছে অসম। সেই বিক্ষোভের আঁচ এখন বাংলাতেও পড়তে শুরু করেছে। নিজেদের নাগরিক অধিকার শুক্রবার থেকে বাংলার বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের এই আইনের তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিরোধীরা।এমন পরিস্থিতিতে ভারতকে সতর্ক করল আমেরিকা। তাদের বিশেষ বার্তায় মার্কিন বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, সংখ্যালঘুদের অধিকার সুরক্ষা করা ভারত সরকারকে নিশ্চিত করতে হবে।

অসমের বিক্ষোভ চরমে পৌঁছানোয় আন্তজার্তিক স্তর থেকেও প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করেছে। মার্কিন বিদেশদফতরের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, 'নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে কেন্দ্র করে যা যা ঘটছে, সেই সম্পর্কে গভীরভাবে নজর রাখছে আমেরিকা।ধর্মীয় স্বাধীনতায় শ্রদ্ধা এবং সবার সমানাধিকারই দুই দেশে গণতন্ত্রের মৌলিক নীতি হওয়া উচিত।তাই ভারত সরকারকে সংবিধান এবং গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের কথা মাথায় রেখে দেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের অধিকার রক্ষা করার আহ্বান জানাচ্ছে আমেরিকা।'

বেশকিছু দিন ধরে ক্যাবে বিরোধীতা করে আসছিল মার্কিন কংগ্রেসের একাংশ। তারা এই বিলকে ভারতীয় সংখ্যালঘুকে নিশানা করার জন্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিত চেষ্টা বলে মোদি সরকার কারের এই পদক্ষেপের বিরোধীতা করেন। বিষয়টি নিয়ে চলতি সপ্তাহেই মোদি-অমিত শাহর বিরুদ্ধে সরব হয় মার্কিন আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা সংক্রান্ত কমিশন ইউএসসিআইআরএফ।তাদের দাবি করেন, নাগরিকত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে ধর্মীয় মানদণ্ড বেঁধে দেওয়া অত্যন্ত বিপদজ্জনক পদক্ষেপ।তাই ভারতীয় সংসদের দু'কক্ষে বিলটি পাস করা হলে স্বরাষ্ট্রীমন্ত্রী অমিত শাহ ও দেশের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা চাপানোর জন্য মার্কিন বিদেশমন্ত্রককে সুপারিশ করা হয়। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ভারত সফর বাতিল করেছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে ও বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only