বুধবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন অসাংবিধানিক, অগণতান্ত্রিক ও বেআইনি : মমতা


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক :  সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে অসাংবিধানিক, অগণতান্ত্রিক, অনৈতিক ও বেআইনি বলে অভিহিত করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা   বন্দ্যোপাধ্যায়।  আজ বুধবার কলকাতায় জাতীয় নাগরিকপঞ্জি ও সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখার সময় তিনি ওই মন্তব্য করেন।

নাগরিকত্বের প্রমাণের নথি নিয়ে বিজেপি নেতৃত্বাধীন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে মমতা বলেন, ‘এতদিন তো আপনারা বলছিলেন, কেউ নাগরিকত্ব  হারাবে না। কিন্তু এখন আবার বলছেন,  কোনও আধার কার্ড, প্যান কার্ডই নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে পারবে না। তাহলে নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে কী বিজেপির ‘মাদুলি’  কাজ করবে?’  

মমতা কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেন, দেশে কত ডিটেনশন ক্যাম্প বানাবেন? প্রথমে ম্যাপ তৈরি করুন। কোন কোন রাজ্যে কতটা তৈরি করবেন? আমরা দেখতে চাই কত তৈরি করতে পারেন আপনারা! 

তিনি বলেন, ‘দেশে বিজেপি যতদিন ক্ষমতায় ছিল না কোনও অশান্তি ছিল না। কিছু হয়নি। বাবরী মসজিদ ধ্বংস করা হয়েছিল ১৯৯২ সালে, তখন আমি দাঙ্গা  দেখছিলাম। এরপরে এমন কিছু হয়নি। লোকেরা শান্তিতে ছিলেন। মানুষজন শান্তিতে জীবন কাটিয়েছেন। কিন্তু এখন দেখুন কাশ্মীর জ্বলছে!অসম জ্বলছে! ত্রিপুরা জ্বলছে!’

মমতা বলেন, ‘গণতন্ত্র আজকে বিধ্বস্ত, বিপর্যস্ত, পর্যুদস্ত, বিপন্ন, গণতন্ত্রে আমরা  আঘাত আনতে দেবো না। ‘ক্যাব’ ও ‘এনআরসি’ গণতন্ত্রের উপরে, মানবিকতার উপরে, সভ্যতা, সংস্কৃতির উপরে আঘাত। এই আঘাতকে আমরা রুখবই, রুখবই রুখব।’    

মমতা এদিন বিজেপি সরকারকে মনে করিয়ে দেন ‘এত করেও মাত্র ৩৮ শতাংশের সমর্থন রয়েছে আপনাদের। অর্থাৎ ৬২ শতাংশ মানুষ আপনাদের বিরুদ্ধে আছে এটা জেনে রাখবেন।’ 

মমতা আজ প্রতিবাদ মিছিলে একটানা প্রায় পাঁচ কিলোমিটার পথ হাঁটেন। প্রতিবাদ মিছিলে এসময় মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে হাজার হাজার সাধারণ মানুষ শামিল হন। মুখ্যমন্ত্রী সমস্ত মানুষকে শপথবাক্য পাঠ করিয়ে অত্যন্ত জোরের সঙ্গে এরাজ্যে এনআরসি হবে না,  জনবিরোধী এই আইন বাতিল করতে হবে। বাংলাকে ভাগ হতে দেওয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only