শুক্রবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯

গুমনামি বাবাই কি সত্যি নেতাজি? সহায় কমিশনের রিপোর্ট কী বলল দেখুন





পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক, লখনউ: গুমনামি বাবাকে নিয়ে জল্পনার শেষ ছিল না। এই গুমনামি বাবাই নাকি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু, এই প্রচারকে অনেকেই সত্যি বলে মনে করছিলেন। সেই জল্পনার অবসান ঘটল বৃহস্পতিবার। এ সম্পর্কে গঠিত বিচারপতি (অব) বিষ্ণু সহায় কমিশন উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় বৃহস্পতিবার যে রিপোর্ট জমা দিয়েছে তাতে পরিষ্কার বলে দেওয়া হয়েছে গুমনামি বাবা আর নেতাজি এক ব্যক্তি ছিলেন না। ফলে, যারা নেতাজি বেঁচে আছেন আর গুমনামি বাবাই আসলে নেতাজি সেই ধারণা ভুল বলে প্রমাণিত হল।

উল্লেখ্য, গুমনামি বাবা ওরফে ভগবানজি ১৯৮৫ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর মারা গিয়েছিলেন। তাকে অযোধ্যার গুপতার ঘাটে সমাহিত করা হয়। কিন্তু মৃত্যুর আগে পর্যন্ত এক শ্রেণির মানুষের ধারণা জন্মেছিল যে, এই গুমনামি বাবাই হলে নেতাজি। সেই ধারণায় জল ঢেলে দিল বিচারপতি বিষ্ণু সহায় কমিশনের পেশ করা রিপোর্ট।

বৃহস্পতিবার সহায় কমিশন হিন্দিতে ১৩০ পাতার যে রিপোর্ট পেশ করেছে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় তাতে বলা হয়েছে, যেখানে গুমনামি বাবা ওরফে ভগবানকি আমৃত্যু ছিলেন সেই ফইজাবাদ (বর্তমানে অযোধ্যা)-এর রাম ভবন থেকে যে তথ্য পাওয়া গেছে তাতে এটা কোনও ভাবেই প্রমাণিত হয়নি গুমনামি বাবাই হচ্ছেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু। সহায় কমিশনের রিপোর্ট বলছে, গুমনামি বাবা তো নেতাজি ছিলেনই না, বরং ১১টি জায়গায় এই তথ্য পাওয়া গেছে যে তিনি ছিলেন নেতাজির অনুসারী। তবে, যখন থেকে মানুষ তাকে নেতাজি বলে অভিহিত করতে শুরু করেন, তখন তিনি তাঁর বাসস্থান পরিবর্তন করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only