বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আজ উঠছে রাজ্যসভায়


                                   




পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক:
টানা ১২ ঘণ্টার বিতর্কের পর লোকসভায় মধ্যরাতে পাস হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি ভোটাভুটির জন্য আজ বুধবার  সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় উঠছে।
ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাংসদদের দাবি, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি রাজ্যসভায় পাস করা সময়ের ব্যাপার মাত্র। 
লোকসভায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্সের (এনডিএ) সংখ্যাগরিষ্ঠতার সুবিধা নিয়ে সোমবার মধ্যরাতে ৩১১-৮০ ভোটে নাগরিকত্ব বিলটি পাস করানো হয়। কিন্তু রাজ্যসভায় সেই সু্যোগ থাকছে না।
রাজ্যসভার আসনের হিসাবে ২৪০-এর মধ্যে ১২১ আসনের ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নির্ধারিত হবে। তার মধ্যে এনডিএ জোট, অল ইন্ডিয়া আন্না দ্রাভিদা মুন্নেত্রা কাঝাগাম (এআইএডিএমকে), জনতা দল ইউনাইটেড, আকালি দল মিলে রয়েছে ১১৬ আসন।
অন্যান্য দল থেকে নির্বাচিত আরও ১৪ রাজ্যসভা সদস্যের সমর্থন প্রত্যাশা করে এনডিএ জোট। তা হলে তাদের হিসাব দাঁড়ায় ১৩০।
ওই ১৪ সদস্যের মধ্যে বিজেপির আগেকার মিত্র শিবসেনা সদস্যরা রয়েছেন। তারা লোকসভায় এই বিলটির পক্ষে ভোট দিলেও রাজ্যসভায় এই বিলের পক্ষে সমর্থন দিচ্ছেন কিনা, বিষয়টি এখনও স্পষ্ট নয়।
 বিলটি পাসের জন্য সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রশ্নে বিজেপি চিন্তিত ।যদিও উড়িষ্যার বিজু জনতা দলের (বিজেডি) সাত রাজ্যসভা সদস্য, অন্ধ্রপ্রদেশের ইয়েদুগুরি সান্দিনি রেড্ডির কংগ্রেস পার্টির (ওয়াইএসআরসিপি) দুই রাজ্যসভা সদস্য, চন্দ্রবাবু নাইড়ুর তেলেগু দেশম পার্টির (টিডিপি) দুই রাজ্যসভা সদস্য কোনো জোটে নেই- তারাও এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি সমর্থন করবে বলে মনে করছে এনডিএ জোট।
অন্যদিকে  কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস অ্যালায়েন্সের (ইউপিএ) রাজ্যসভায় ৬৪ আসন, তারা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটির বিরোধিতা করে অন্য দলের আরও ৪৬ সদস্যের সমর্থন প্রত্যাশা করছে।
তাদের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস, সমাজবাদী পার্টি, তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি (টিআরএস), সিপিআইএম
রয়েছে। তাতে বিরোধীদের ভোটের হিসাব দাঁড়ায় ১১০।
তবে অমর সিংয়ের মতো কয়েকজন রাজ্যসভা সদস্য অসুস্থতার কারণে এই ভোটাভুটিতে অনুপস্থিত থাকবেন।
প্রসঙ্গত এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি ভারতীয় আইনসভার উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় পাস হয়ে আইন আকারে গৃহীত হলে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মতো মুসলিম অধ্যুষিত দেশগুলো থেকে আসা কেবল অমুসলিমদেরই (হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, জৈন, শিখ ও পার্সি) নাগরিকত্ব মিলবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only