মঙ্গলবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৯

অবশেষে বোধদয়! পুলিশের গুলিতেই মৃত্যু সুলাইমানের, স্বীকারোক্তি পুলিশের

পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: কথায় বলে, ‘বেটার লেট দ্যান নেভার’। যোগী পুলিশের ক্ষেত্রেও অনেকটা তেমনই প্রযোজ্য। বিজনৌরে পুলিশের গুলিতেই মৃত্যু হয় বছর ২০-র সুলাইমানের। অবশেষে এই সত্য স্বীকার করে নিলেন বিজনৌরের পুলিশ প্রধান।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে উত্তরপ্রদেশে মারা যান ১৫জন। স্থানীয়দের দাবি, মৃতদের অনেকের শরীরেই বুলেটের ক্ষত ছিল। যদিও পুলিশ তা স্বীকার করেনি। পুলিশ প্রধান ওপি সিং জানিয়েছিলেন, সেখানে পুলিশ গুলি চালায়নি। অবশেষে বোধদয় বিজনৌরের পুলিশ সুপারিনটেনডেন্ট সঞ্জীব ত্যাগী স্বীকার করলেন, সুলাইমান পুলিশের বন্দুক কেড়ে নিয়েছিল। এক কনস্টেবল সেই বন্দুক তাঁর থেকে ফেরত চাইলে, কনস্টেবলকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার জন্য পাল্টা গুলি ছোড়েন ওই কনস্টেবল। তাতেই মৃত্যু হয় তাঁর’।

যদিও সুলাইমানের পরিবারের দাবি, ইউপিএসসি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। প্রতিবাদ কর্মসূচির সঙ্গে কোনও যোগাযোগই ছিল না তাঁর। সুলাইমানের ভাই শোয়েব মালিক বলেন, ‘ভাই জুম্মার নামাজ পড়তে গিয়েছিল। নামাজের পর বাড়িতে খেতে আসছিল। গত ২দিন ধরে তাঁর জ্বর ছিল। মসজিদ থেকে বেরোতেই দেখে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটাচ্ছে। সঙ্গে লাঠিচার্জ। পুলিশ তাঁকে ধরে নিয়ে গিয়ে গুলি করে মেরে ফেলে’।

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only