শনিবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯

মেয়ের হত্যাকারীদের এনকাউন্টারই চান উন্নাওয়ের ধর্ষিতার বাবা

গত বৃহস্পতিবার উন্নাওয়ের নিগৃহীতা যখন আদালতে যাচ্ছিলেন, সেই সময়েই তাঁর উপর হামলা করে ৫ অভিযুক্ত। তাঁর গায়ে আগুন লাগিয়ে ঘটনাস্থলেই মেরে ফেলার চেষ্টা করা হয় তাঁকে। ৯০ শতাংশ পুড়ে যান ওই ধর্ষিতা, আশঙ্কাজনক অবস্থায় দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। কিন্তু শুক্রবার রাত ১১টা ৪০ নাগাদ হাসপাতালেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর।

তেলেঙ্গানা ধর্ষণ কাণ্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের আরও এক ধর্ষিতাকে মেরে ফেলা হল। উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ে এক তরুণীকে বৃহস্পতিবার গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় কয়েকজন। জানা গেছে, যাঁরা ওই মেয়েটির গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয় তাঁদের মধ্যে সেই ২ জনও ছিল যাঁদের বিরুদ্ধে ওই নিগৃহীতা ধর্ষণের  অভিযোগ করেছিলেন। শুক্রবার গভীর রাতে দিল্লির হাসপাতালে ৯০ শতাংশ পুড়ে যাওয়া ওই তরুণীর মৃত্যু হয়। মেয়ের মৃত্যুতে চোখের জল হয়তো কোনওদিনই শুকোবে না তাঁর বাবার, কিন্তু এই মুহূর্তে তিনি প্রতিশোধের আগুনে জ্বলছেন। তিনি পরিষ্কার জানান, যে ৫ অভিযুক্ত তাঁর মেয়েকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করল তাঁদেরকেও গুলি করে মেরে ফেলা হোক, একদম হায়দরাবাদের এনকাউন্টারের মতো। আমি সরকার ও কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কেবলমাত্র এটাই জানাতে চাই যে, হয় দোষীদের ফাঁসি দেওয়া হোক অথবা তাঁদের ঠিক হায়দরাবাদের এনকাউন্টারের মতো গুলি করে হত্যা করা হোক। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only