মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯

ক্যাব নিয়ে উত্তাল উত্তর-পূর্ব ভারত, পিছোন হল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা

বিতর্ক জিইয়ে রেখেই লোকসভায় পাশ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি)। এর জেরে বিক্ষোভে উত্তাল অসম সহ উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক রাজ্য। নর্থ ইস্ট স্টুডেন্টস ইউনিয়নের ডাকা বনধের জেরেও জনজীবনে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। পরিস্থিতির ওপর নজর রেখে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে গুয়াহাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা।

বিরোধীদের তুমুল প্রতিবাদ। তা সত্ত্বেও সোমবার মধ্যরাতে সংসদের নিম্নকক্ষে পাশ সিএবি। বিলটির পক্ষে ভোট পড়েছে ৩১১টি। আর বিপক্ষে ৮০টি। এদিকে বিল পাশ হতেই উত্তপ্ত অসম, অরুণাচলপ্রদেশ, মেঘালয়, মিজোরাম ও ত্রিপুরার মতো রাজ্যে। অসমের মালিগাঁওয়ে একটি সরকারি বাসে ভাঙচুর চালান বিক্ষোভকারীরা। এর পাশাপাশি গুয়াহাটিতে বিধানভবন ও সেক্রেট্যারিয়েট ভবনের সামনে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বাধে আন্দোলনকারীদের। আন্দোলনের জেরে গুয়াহাটিতে সমস্ত অফিস বন্ধ। বন্ধ স্কুল কলেজের পঠন-পাঠনও। ব্যাহত ট্রেন চলাচল। যার জেরে ভোগান্তিতে পড়তে হয় দূরপাল্লার বহু যাত্রীকে। স্থগিত রাখা হয়েছে গুয়াহাটি ও ডিব্রুগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা।  নর্থ ইস্ট স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশন (নেসো)-এর ডাকা বনধেও জনজীবনে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। এই বনধকে সমর্থন জানিয়েছে কংগ্রেস, অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট, অল অসম স্টুডেন্টস ইউনিয়ন, কৃষক মুক্তি সংগ্রাম সমিতি, অল অরুণাচল প্রদেশ স্টুডেন্টস ইউনিয়ন, খাসি স্টুডেন্টস ইউনিয়ন এ নাগা স্টুডেন্টস-এর মতো সংগঠনগুলি।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে অ-মুসলিমরা এসে ভিড় করলে তাদের জীবনযাত্রার ওপর প্রভাব পড়বে। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only