বুধবার, ১ জানুয়ারী, ২০২০

রাজ্যগুলিকে ডিঙিয়ে নাগরিকত্ব প্রক্রিয়া অনলাইনে?

যেসব রাজ্য নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) বাস্তবায়নে অস্বীকার বা বিরোধিতা করেছে, সেখানে বিকল্প পন্থা অবলম্বন করতে পারে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার।ইতিমধ্যে কেরল রাজ্য বিধানসভায় এ্রর বাস্তাবায়ন না করার জন্য প্রস্তাব পাশ করেছে। মমতাও জানিয়ে দিয়েছেন, আমি বেঁচে থাকতে বাংলায় ক্যা, এনআরসি নয়। এই পরিস্থিতিতে অমিত শাহরা রাজ্যগুলিকে ডিঙিয়ে নাগরিকত্ব প্রক্রিয়া শুরু করতে চাইছে অনলাইনে। এ্রর আগে অমিত শাহ হুমকিও দিয়েছিলেন, কীভাবে সিএএ প্রয়োগ করতে হয় আমাদের জানা আছে। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ বলেছেন, নাগরিকত্ব নির্ধারণের বিরুদ্ধে কোনো আইন পাশ করার এক্তিয়ার বা ক্ষমতা নেই কোনো বিধানসভার।

নাগরিকত্ব সংশোধন আইন নিয়ে ভারতের বেশ কিছু রাজ্যে বিরোধিতার মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার এটি বাস্তবায়নের জন্য অনলাইন ব্যবস্থায় যাওয়ার পরিকল্পনা করছে। নাগরিকত্বের জন্য বর্তমান প্রক্রিয়ায় জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের মাধ্যমে আবেদন করার নিয়ম আছে। কিন্তু এই প্রক্রিয়া বাতিল করে পুরো প্রক্রিয়া অনলাইনে করার কথা ভাবছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। এই প্রক্রিয়া অনলাইনে সম্পন্ন করার মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকার আরো একধাপ এগিয়ে যেতে চায়। তাতে সব পর্যায়ে রাজ্য সরকারের হস্তক্ষেপের অবসানে সক্ষম হবে কেন্দ্রীয় সরকার।

প্রসঙ্গত, সিএএ অনুযায়ী, ২০১৪ সালের ৩১ শে ডিসেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের নির্যাতিত ধর্মীয় সংখ্যালঘু হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, পারসি ও খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের যারা ভারতে অাশ্রয় নিয়েছেন তাদেরকে এই আইনের অধীনে নাগরিকত্ব দেয়া হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only