বৃহস্পতিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২০

শান্তি নিকেতনে অশান্তির ছোঁয়া! বিশ্বভারতীর ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রছাত্রীদের মারধরের অভিযোগ

দেবশ্রী মজুমদার, শান্তিনিকেতন­: ঐশীর পর স্বপ্নিল? না, বিশ্বভারতীতে স্বপন দাশগুপ্তের এন আর সি নিয়ে বক্তৃতায় বাধা? নাকি পূর্বপ্ললীর বয়েজ হোস্টেলে বহিরাগতদের ভিড়? যেটাই হোক,  বিশ্বভারতী ক্যাম্পাসে রাতের অন্ধকারে বাম ছাত্রদের ওপর হামলার অভিযোগ জেএনইউ বিতর্কের স্মৃতিকে আরেকবার উসকে দিল!

অভিযোগ, শুধু ক্যাম্পাসেরই নয়, হামলাকারীরা হাসপাতালে ঢুকেও মারধর করেছে বাম ছাত্রদের। যদিও, ধৃত ছাত্র অচিন্ত্য বাগদী তা অস্বীকার করেছে!  

বুধবার ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বিশ্বভারতী। সেদিন রাতে বাম ছাত্র সংগঠনের দুই নেতাকে বিশ্বভারতী ক্যাম্পাসের মধ্যে মারধর করার অভিযোগ উঠেছিল এবিভিপির বিরুদ্ধে। ওই দুই ছাত্রকে উদ্ধার করে পিয়ারসন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেও এবিভিপির ছাত্ররা চড়াও হয়ে মারধর করে বলে অভিযোগ ওঠে। অভিযোগের তীর তিন ছাত্র নেতা অচিন্ত্য বাগদী ও সাবির আলি ও সুলভ কর্মকারের বিরুদ্ধে৷ যদিও আজ সকালে অচিন্ত্য বাগদী দাবি করে সে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের বিশ্বভারতী ইউনিটের সভাপতি। অচিন্ত্য ও সাবির দুজনেই দাবি করে ঘটনার সঙ্গে এবিভিপি জড়িত নয়। বহিতাগতরা কেন আসছে বিশ্বভারতীতে তার প্রতিবাদ করাতেই বামপন্থী ছাত্র সংগঠনের সদস্যরা সুলভ কর্মকার নামে এক ছাত্র কে মারধর করে। পূর্বপল্লীর বয়েজ হোস্টেলে বহিরাগতদের জড়ো করেছিল বাম পন্থীরা।

এদিকে গতকাল রাতের ঘটনার জেরে আজ সকাল থেকে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বিশ্বভারতী।  সেন্ট্রাল অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে বামপন্থী ছাত্রছাত্রীরা। তারা অবস্থান বিক্ষোভ করে। উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে সোচ্চার হয় তারা। অভিযোগ করে স্মারকলিপি জমা দিতে ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। যদিও পরে তাদের কয়েকজন প্রতিনিধি স্মারকলিপি জমা দেয়। 

এদিন সেন্ট্রাল অফিসের সামনে মিটিং করে বামপন্থী ছাত্রছাত্রীরা। তারপরই তারা মিছিল করে শান্তিনিকেতন থানায় যায়। সেখানেও তারা অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে। ততক্ষনে অবশ্য অচিন্ত্য বাগদী ও সাবির আলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। থানায় ডেপুটেশন দেওয়ার পর বামপন্থী ছাত্রছাত্রীরা জানায় আগামীকাল বিকেল চারটের সময় তারা বিশ্বভারতী ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার দাবিতে  বিক্ষোভ মিছিল করবে। 

 এদিন ধৃত দুই ছাত্র নেতাকে বোলপুর আদালতে তোলা হয়। পুলিশ ১৪ দিনের জন্য নিজেদের হেপাজতে রাখার আবেদন জানায়।  যদিও বিচারক ৯দিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দেন।  জানিয়েছেন সরকারি আইনজীবি ফিরোজ পাল।

অভিযোগ, অনেকেই বিশ্বভারতীর মায়া কাটাতে পারেন না।  “কম্বল ছাড়লেও, কম্বলী ছাড়ে না”। রামকৃষ্ণের এই গল্প এখন বিশ্বভারতীতে। তাই বহিরাগতদের রমরমা, অভিযোগ বিশ্বভারতীর প্রাক্তনী মুহাম্মদ সফির। তিনি জানান, আগেও এক বহিরাগতকে নোটিশ দিয়ে পূর্বতন উপাচার্য সমস্ত ভবনকে জানিয়ে দিয়েছিলেন, জামসেদ আলি নামে এক ছাত্র বিশ্বভারতীর কোন ছাত্র নয়। 

বিশ্বভারতীর তৃণমূল সংগঠন তরফে দাবি করা হয়,  অচিন্ত্য বাগদী প্রথম থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত  তৃণমূল করতেন। তারপর তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।  কিন্তু নতুন উপাচার্য আসার পর, অচিন্ত্য বাগদী এবিভিপি করতে শুরু করে।  এবিভিপি অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলছে অভিযুক্তরা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ভাবে যুক্ত ছিল। এবিভিপিকে দায়ী করছে তৃণমূলও। ছাত্র ঐক্য আঙুল তুলছেন উপাচার্যের দিকে। তাঁদের মতে,  অভিযুক্তরা উপাচার্যের ছায়াসঙ্গী,  যা হয়েছে তাতে মদত রয়েছে উপাচার্যেরই। বিশ্বভারতী তে এনআরসির সমর্থনে হওয়া সভার বিরোধিতারই মাশুলই দিতে হচ্ছে বামছাত্রদের।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only