রবিবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২০

সিএএ-এনআরসি-এনপিআরের বিরোধিতা করুন, নীতীশ কুমারকে আর্জি দলেরই সাধারণ সম্পাদকের

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার বিজেপি জোটে থাকলেও দলীয় সমর্থকদের চাপে অবশেষে সে রাজ্যে এনআরসি চালু করা হবে না বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের ব্যাপারে তিনি ওড়িশার নীতি অবলম্বন করেন। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন সমর্থন করলেও এনআরসি সমর্থন করেননি। এ নিয়ে দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট ভোটকৌশলী প্রশান্ত কুমারের সঙ্গে নীতীশ কুমারের আলোচনা হয়। তারপরই নীতীশ এনআরসি বিহারে চালু করা হবে না বলে জানেন। কিন্তু নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে নীতীশ সমর্থন করায় দলের মধ্যে বিভাজন দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে দলের জেডিইউয়ের সাধারণ সম্পাদক তথা রাজ্যসভার প্রাক্তন সদস্য পবন ভার্মা চিঠি লিখে নীতীশ কুমারের কাছে আর্জি জানিয়েছেন, তিনি যেন বিহারে সিএএ, এনআরসি, এনপিআর চালু না করেন। বরং এর বিরোধিতা করেন। যদিও বিহারের উপমুখ্যমন্ত্রী সুশীল কুমার মোদি ঘোষণা করেছেন, আগামী মে থেকে বিহারে এনপিআর বাস্তবায়ন করা হবে। আর জেডিইউয়ের একাংশ তাতে সম্মতিও জানিয়েছে৷ 

 এ বিষয়ে ভার্মা বলেন, তিনি নীতীশ কুমারকে অনুরোধ করেছেন সিএএ-এনআরসি ও এনপিআর-এর বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার জন্য। কারণ, এই আইন দেশে বিভাজন সৃষ্টি করবে এবং সামাজিক অস্থিরতা তৈরি করবে। তিনি আরও বলেন, সিএএ ও  এনআরসির লক্ষ্য হচ্ছে হিন্দু ও মুসলিমদের মধ্যে বিভাজন সৃষ্টি, যা ভারতের পক্ষে খুবই ভয়াবহ ব্যাপার হয়ে দাঁড়াবে। এর আগে অবশ্য প্রশান্ত কিশোরও সিএএ-র বিরোধিতা করেছিলেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only