বৃহস্পতিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২০

কোনও ধরনের শর্ত ছাড়াই ইরানের সঙ্গে আলোচনায় রাজি আমেরিকা


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক, ওয়াশিংটন: বাগদাদে দুটি মার্কিন সেনাঘাঁটিতে ইরানি মিসাইল হামলা নিয়ে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মুখ খুলেছেন গতকাল বুধবার তার বক্তব্যে ইরানকে আক্রমণের ঝাঁঝ তেমন ছিল না ইরানের প্রতি চরম হুঁশিয়ারি না দিয়ে বরং, দাবি করেছেন ইরানি কোনও মার্কিন সেনা বা কোন মার্কিন নাগরিকের ক্ষতি হয়নি যদিও স্বীকার করেছেন, সামান্য হলেও ক্ষতি হয়েছে মার্কিন সেনাঘাঁটির ট্রাম্পের চিরাচরিত হম্বিতম্বি এদিন দেখা যায়নি বরং, যুদ্ধ এড়াবার নানা কৌশল নিয়ে চলেছেন উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যেমন উত্তেজনায় টগবগ করে ফুটছিলেন ট্রাম্প, হোয়াইট হাউস থেকে দেওয়া ট্রাম্পের এদিনের বিবৃতিতে তার চাপ মেলেন বোঝাই যাচ্ছির তার সুর নরম এবার আরও সুর নরমের ইঙ্গিত পাওয়া গেল ট্রাম্পের মধ্যে রাষ্ট্রসংঘে চিঠি লিখে ট্রাম্প বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি রূপায়ণে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে কোনো শর্ত ছাড়াই আলোচনায় বসতে প্রস্তুত

যে ইরানি জেনারেল কাসেম সুলাইমানিকে ড্রোন হামলায় হত্যা করার পর বিশ্ব জুড়ে ট্রাম্প সমালাচিত হন ইতিমধ্যে মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জেনারেল সুলাইমানি হত্যা নিয়ে আমেরিকার বিরুদ্ধে সরব হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবশ্য জেনারেল সুলাইমানির হত্যাকে নিজেদের রক্ষার জন্য কাজ বলে রাষ্ট্রসংঘকে লেখা চিঠিতে জানিয়েছেযদিও ইরানে পাল্টা আক্রমণের ব্যাপারে কোনও মন্তব্য না করে, আলোচনার দরজা খুলে রেখেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ওই চিঠিতে বলেছে, কোনও ধরনের শর্ত চাড়াই তারা ইরানের সঙ্গে বৈঠক করতে প্রস্তুত

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়অ চিঠি সম্পর্কে রাষ্ট্রসংঘে নিয়োজিত মার্কিন রাষ্ট্রদূত কেলি ক্র্যাফট বলেছেন, আন্তর্জাতিক শান্তি নিরাপত্তা বজায় রাখতে এবং নিয়ে যাতে কোনও ধরনের উত্তেজনা বৃদ্ধি না হয় তার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আলোচনা করতে প্রস্তুত রয়েছে

সুলাইমানি হত্যা সঠিক পদক্ষেপ ছিল দাবি করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, রাষ্ট্রসংঘ সনদের ৫১ ধারায় বলা হয়েছে, কোন রাষ্ট্র যদি নিজেদের রক্ষার জন্য কোনও পদক্ষেপ নেয় তাহলে সেটি দ্রুত রাষ্ট্রসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে জানাতে হবে তাই তাদের চিঠি এছাড়া, চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সেনাবাহিনী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের  স্বার্থ রক্ষার জন্য আমেরিকা প্রয়োজন অনুযায়ী অতিরিক্ত ব্যবস্থা নেবে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই চিঠি কথা সামনে আসার পর রাষ্ট্রসংঘে চিঠি পাঠিযেছে ইরানও ইরানও চিঠির মাধ্যমে রাষ্ট্রসংঘ সনদের ৫১ ধারা উল্লেখ করে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার যৌক্তিকতা তুলে ধরেছে ব্যাপারে রাষ্ট্রসংঘে নিয়োজিত ইরানি রাষ্ট্রদূত মাজিদ তখতরাভানচি চিঠিতে জানিয়েছেন, ইরান কোন যুদ্ধ কিংবা উত্তেজনা বাড়াতে চায় না তারা আত্মরক্ষার চেষ্টা করেছে মাত্র তিনি আরও লিখেছেন, তাদের মিসাইল হামলার লক্ষ্য ছিল শুধুমাত্র মার্কিন সামরিক বাহিনী তাই তাদেরই ক্ষতি হয়েছে কোনও বেসামরিক মানুষ বা সম্পত্তির ক্ষতি হয়নি

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only