বৃহস্পতিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২০

সাসপেন্ড ইসরাইলি সাংবাদিকের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বাগদাদে আহত মার্কিন সেনাদের চিকিৎসা চলছে ইসরাইলের হাসপাতালে


তেলআবিব, ৯ জানুয়ারি: বাগদাদে দুটি মার্কিন সেনাঘাঁটিতে ইরানের মিসাইল হামলা নিয়ে ইরান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চাপান-উতোর চলছে। ইরান দাবি করেছে, তাদের মিসাইল হামলায় মার্কিন ঘাঁটি দুটিতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কমপক্ষে মারা গেছে ৮০ জন। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বুধবার এক টেলিভিশন ভাষণে ইরানের দাবিকে নস্যাৎ করে দিয়ে বলেছেন, ইরানি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে কোনও মার্কিন সেনার মৃত্যু ঘটেনি। আর সামান্য মাত্র ক্ষতি হয়েছে মার্কিন সেনাঘাঁটি দুটির। এই চাপান উতোরের মধ্যে জল্পনা বাড়িয়ে দিয়েছে এক ইসরাইলি সাংবাদিকের ট্যুইটার পোস্ট। 

জ্যাক খুরি নামের ওই সাংবাদিক ট্যুইটারে লিখেছেন, ইসরাইলি দৈনিক হারেৎজ থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে আইন আল-আসাদ বিমানঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় আহত ২২৪ জন মার্কিন সেনাকে তেল আবিবে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এমনকী এইসব  সেনাকে তেল আবিবের সুরাস্কি মেডিক্যাল সেন্টার হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে। জ্যাক খুরি আরও লিখেছেন, হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়কে আশ্বস্ত করেছেন, হাসপাতালে ডাক্তার ও কর্মচারীরা মার্কিন সেনাদেরকে চিকিৎসার ব্যাপারে সর্বোত্তম চেষ্টা চালাবে।

ইসরাইলি সাংবাদিকের এই বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়া ছড়িয়ে পড়ায় দ্রুত ভাইরাল হয়। তখন নড়েচড়ে বসে ইসরাইলি প্রশাসন। অবশেষে জ্যাক খুরিট্যুইটার আ্যকাউন্ট থেকে মার্কিন সেনাদের ক্ষয়ক্ষতি সম্বলিত তথ্য প্রথমে মুছে ফেলা হয়। তারপর তার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করে দেয় ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only