শনিবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২০

গোবরডাঙায় ৩০০ বিজেপি কর্মী তৃণমূলে, বিজেপি ‘শেষ’ বললেন জ্যোতিপ্রিয়

এম এ হাকিম, বনগাঁ :  উত্তর ২৪ পরগণার গোবরডাঙা পৌর এলাকার তিনশো বিজেপি কর্মী-সমর্থক দলত্যাগ করে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। শনিবার বিকালে তাঁদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলার তৃণমূল সভাপতি ও রাজ্যের খাদ্য ও সরবরাহ মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। 
  
এই প্রসঙ্গে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানান, ‘বিজেপি ‘শেষ’। ৬ মাসেই তাঁদের কফিনে পেরেক পুঁতে গিয়েছে।’ যারা এদিন তৃণমূলে যোগ দেন তাঁদের সম্পর্কে জ্যোতিপ্রিয় বাবু বলেন, ‘এরা নব্য বিজেপি নয়, এরা সবাই পুরোনো বিজেপির কর্মী। কল্যাণ দত্ত রায়ের নেতৃত্বে গোবরডাঙায় বিজেপি’র যিনি মাথা ছিলেন, তিনি ৩০০ জনকে নিয়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। সিপিএমের কিছু লোক বিজেপিতে ঢোকায় এরা তিতিবিরক্ত হয়ে ছিলেন। গোবরডাঙা জুড়ে তাঁরা অশান্তি করছে। সিপিএমের লোকেরা বিজেপি সেজে যাওয়ায় ব্যারাকপুর, বারাসত-সহ বিভিন্ন জায়গায় অশান্তি হচ্ছে। সেজন্য ওঁরা বিজেপিতে থাকতে চাননি। তাঁরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে চলার অঙ্গীকার গ্রহণ করে মমতার উন্নয়নে শরীক হতে চেয়েছেন। এনআরসি ও ‘ক্যা’র বিরুদ্ধে যে আন্দোলন চলছে সেই আন্দোলনেও তাঁরা শরীক হবেন। সেজন্য আজকে তাঁরা দল বেধে তিনশো জন তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।’ ওই ঘটনাকে বিজেপিতে বড়সড় ধস বলে তৃণমূল নেতারা মনে করছেন।  

গোবরডাঙায় দলীয় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলবদলের ওই অনুষ্ঠানে জেলা তৃণমূল যুব সভাপতি পার্থ ভৌমিক, বনগাঁর প্রাক্তন এমপি মমতা ঠাকুর, বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের দলীয় চেয়ারম্যান গোবিন্দ দাস, তৃণমূল নেতা  নারায়ণ গোস্বামী, সুভাষ দত্ত, শঙ্কর দত্ত, রাজীব দত্ত প্রমুখ ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only