মঙ্গলবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২০

এরাজ্যে দলে বুদ্ধিজীবী টানতে গোপন বৈঠকে সংঘ ও বিজেপি



চিন্ময় ভট্টাচার্য

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং এনপিআর-সহ নানা ইস্যুতে বাম-তৃণমূল বুদ্ধিজীবীদের সঙ্গে টক্করে হালে পানি পাচ্ছে না বিজেপি-সহ সংঘ পরিবার। সেই কারণে, এবার রাজ্যের বুদ্ধিজীবীদের দলে টানতে উদ্যোগ নিতে চলেছে সংঘ। এই ব্যাপারে ব্লু-প্রিন্ট তৈরি করতে মঙ্গলবারই রাজ্যে আরএসএসের সদর দফতর কেশব ভবনে গোপন বৈঠক করলেন আরএসএস নেতারা। বৈঠকের নেতৃত্বে ছিলেন দেশের অন্যতম শীর্ষ আরএসএস নেতা মনমোহন বৈদ্য।

সূত্রের খবর, বৈঠকে রাজ্যের মোট আট জন বুদ্ধিজীবী উপস্থিত ছিলেন। তাঁদেরকে এদিন রাজ্যের অন্যান্য বুদ্ধিজীবীদের প্রভাবিত করতে এবং দলে টানার দায়িত্ব দিয়েছেন বৈদ্য। এমনিতে সংঘের বৌদ্ধিক বিভাগের কাজই হল, বুদ্ধিজীবীদের মধ্যে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করা। সেই বিভাগকেও এবার বুদ্ধিজীবীদের প্রভাবিত করতে আরও সক্রিয় করে তুলতে চান সংঘ নেতৃত্ব। সূত্রের খবর, বৈঠকে মনমোহন বৈদ্য পরিষ্কার জানিয়েছেন যে, বিরোধী দলগুলোকে রাজনৈতিকভাবে সামলাতে সংঘ পরিবারের কোনও অসুবিধা হচ্ছে না। কিন্তু, মোদি সরকারের নানা সিদ্ধান্তে বড় বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছেন বাঙালি বুদ্ধিজীবীরাই।


তাঁদের মোকাবিলা করতে পালটা বুদ্ধিজীবীদের পথে নামাতে চায় সংঘ পরিবার। সূত্রের খবর, বিজেপির পক্ষ থেকে এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) সুব্রত চট্টোপাধ্যায়। তিনি সংঘ থেকেই বিজেপিতে নিযুক্ত হয়েছেন। বৈঠকে বিজেপি এবং সংঘের বুদ্ধিজীবীদের মধ্যে সমন্বয় রক্ষার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সুব্রত চট্টোপাধ্যায়কেই।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only