বৃহস্পতিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২০

বছরের প্রথম সপ্তাহে বস্ত্র বিতরণ ও দুস্থ শিশুদের মধ্যাহ্নভোজন

জেলারও আইনী পরিষেবা কতৃপক্ষের সাহারা প্রকল্পের সূচনা

বছরের প্রথম সপ্তাহে " হ্যাপি নিউ ইয়ার" বলে সবাই যখন গাড়ি ভাড়া করে ডিজে বক্স বাজিয়ে  পিকনিক করে  হৈ হুল্লোড়ে মগ্ন তখন দিনটিকে অন্যভাবে পালন করলো বীরভূম ডিস্ট্রিক লিগ্যাল সার্ভিসেস অথরিটি  সহ বেশ কিছু সমাজসেবী সংগঠন।  পাঁড়ুই থানার রহমতপুর আদিবাসী পল্লীতে আদিবাসী সম্প্রদায়ের দুঃস্হ শিশুদের মধ্যাহ্নভোজন করানো হয়। ও শারীরিক ভাবে অক্ষম বয়স্ক দুর্বল ব্যাক্তি, যারা হাঁড় কাঁপানো শীতে কষ্ট পাচ্ছে তাদের  কম্বল বিতরন করা হয়। উদ্যেক্তা প্রতিভা গাঙ্গুলী, আয়োজক ডিস্ট্রিক লিগ্যাল সার্ভিসেস অথরিটির মহিউদ্দীন আহমেদ, সমাজকর্মী নুরুল হকরা জানান,  বক্স বাজানো, গাড়ি ভাড়া করে বাইরে গিয়ে পিকনিক করতে গিয়ে যে অতিরিক্ত টাকা খরচ করা হয়,  তা না করে আমরা দুঃস্হ শিশুদের মুখে হাঁসি ফোটাতে এই মধ্যাহ্ন ভোজনের ও কম্বল বিতরনের ব্যাবস্হা করেছি। শিশুদের আনন্দ দিতে বেলুন, চকলেটও দেওয়া হয়। এদিন ডিস্ট্রিক লিগ্যাল সার্ভিসেস অথরিটির তরফে আদিবাসীদের আইনি অধিকার নিয়ে একটি কর্মশালাও হয়। উল্লেখ্য, আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষদের জন্য সিউড়ি আইনি পরিষেবা দফতরে একটি বিশেষ শাখা রয়েছে সে কথাও জানানো হয় আদিবাসীদের। উপস্হিত ছিলেন ডিস্ট্রিক লিগ্যাল সার্ভিসেস অথরিটির আইনী সহায়ক মহিউদ্দীন আহমেদ, পাঁড়ুই থানার ওসি নীল রতন ঘোষ, আইনজীবী ডঃ মানবেন্দ্র ভৌমিক বোলপুর শান্তিনিকেতন এলাকার বহু বিশিষ্ট ব্যাক্তিরা।

উল্লেখ্য, সমাজের যারা দুঃস্থ, খোলা আকাশের নীচে বসবাস করে তাদের জন্য স্টেট লিগ্যাল সার্ভিসেস অথরিটির বীরভূম জেলা  চালু করছে সাহারা প্রকল্প। এদিন সেই সাহারা প্রকল্পেরও সূচনা হয়। এদিন ৫০ জনকে কম্বল বিতরণ করা হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only