বৃহস্পতিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২০

ইউক্রেনের বিমান নিয়ে দানা বাঁধছে সন্দেহ, ব্ল্যাকবক্স নির্মান সংস্থাকে দেবে না ইরান



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: ইরানে ইউক্রেনীয় বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার নিয়ে বেশ কিছু নয়া তথ্য উঠে এসছে।বৃহস্পতিবার ইরানি তদন্তকারীরা তাদের প্রাথমিক রিপোর্টে জানিয়েছে, মাঝ আকাশে বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার আগে, পাইলট প্লেনটিকে নিয়ে বিমানবন্দরে ফিরে আসার চেষ্টা করে ছিলেন। কিন্তু তেহরানের ইমাম খোমেনি বিমানবন্দরে ফিরে আসার আগেই ১৭৬ জন যাত্রী ও ক্রু সদস্যদের নিয়ে বিমানটি ভেঙে পড়ে।

ইরানের বিমান সংস্থার আর দাবি, বিমানের পাইলট তাদের কোনও রকমের বিপদ সংকেত বা বার্তা বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে আসেনি। সংস্থা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দুর্ঘটনা নিয়ে তাদের তদন্ত এখনও পর্যন্ত যা উঠে এসছে সেই সমস্ত কিছু তথ্য ইতিমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বুধবার ভোরে তেহরান বিমান বন্দর থেকে যাত্রা শুরুর পরেই ভেঙে পড়ে ইউক্রেনীয় একটি বিমান। ওই বিমানে বেশির ভাগ যাত্রী ইরান ও কানাডার নাগরিক ছিলেন। এরপর প্রতিক্রিয়ায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমায়ার জেলেস্কির জানিয়ে ছিলেন, যান্ত্রিক ক্রুটির কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু অনেকেই এটিকে সন্ত্রাসী হামলা বলে অনুমান করে ছিল।
তবে বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের সিকিউরিটি কাউন্সিলের কর্মকর্তাদের দাবি, বিমানটি কোনও সন্ত্রাসী হামলার শিকার। সেটির ওপর রাশিয়ার তৈরি ড্রোন বা মিসাইল দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে।ইতিমধ্যে, ইউক্রেন একটি তদন্তকারী দলকে ইরানে পাঠিয়েছে। দূর্ঘটনাস্থল থেকে বিমানের নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইরান দাবি করেছে, বিমানবন্দর থেকে যাত্রা শুরু পর রের্ডার থেকে উধাও হয়ে গিয়ে ছিল বিমানটি। পরে তারা জানতে পারে ভেঙে পড়েছে ওই বিমান। ইতিমধ্যে তেহরানের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু করেছে ইউক্রেন।

তবে বিধ্বস্ত বিমানের ব্ল্যাক বক্সকে নির্মাতা সংস্থাকে ফেরত দেবে না ইরান বলে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিমানটির নির্মান সংস্থা আমেরিকার, তাই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তেহরান।কোনও বিমান দূর্ঘটনা ঘটলে বিমানের সঙ্গে ঘটা সমস্ত তথ্য ব্ল্যাকবক্স থেকেই পাওয়া যায়। ব্ল্যাক বক্স হচ্ছে এমন একটি ডিভাইস যেখানে ফ্লাইট ডেটা রেকর্ডিং ও ককপিট ভয়েস রেকর্ডিং সংরক্ষিত থাকে। ককপিট ভয়েস রেকর্ডার অংশে বিমান চালকের কক্ষের সকল অডিও/কথাবার্তা রেকর্ড হয়। এতে করে পাইলট ও অন্যান্য ক্রু’র কথাবার্তা ও আলোচনা শুনতে পাওয়া যায়, যা থেকে শেষ মুহূর্তের সমস্যাগুলো সম্পর্কে ধারণা করা সম্ভব। এছাড়া ফ্লাইট ডেটা রেকর্ডার অংশে বিমানের টেকনিক্যাল বিভিন্ন তথ্য যেমন প্লেনের গতি, বাতাসের গতি, বিমান কত উঁচুতে উড়ছে, জ্বালানী প্রবাহ, চাকার গতিবিধি সংরক্ষিত থাকে

বর্তমানে জেনারেল সুলাইমানি হত্যা নিয়ে ইরান-আমেরিকা দ্বন্দ্বে পারস্য উপদ্বীপ উত্তেজনা শুরু হয়েছে। এমন পরিস্থিতে ইরানি নাগরিক যাত্রীবাহী বিমান ভেঙে পড়ায় এই দুর্ঘটনাকেও সন্দেহের চোখে দেখছে ইরান।

ইরানের বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার প্রধান আলি আবেদজাদেহ বলেন, আমরা মার্কিন কিংবা নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানকে ব্ল্যাক বক্স দেবো না। এই দুর্ঘটনার তদন্ত ইরান করবে। তবে ইউক্রেন চাইলে উপস্থিত থাকতে পারে। দুর্ঘটনাটি তেহরানের মাটিতে ঘটায় ইরানের এ বিষয়ে তদন্ত করার এখতিয়ার রয়েছে। এদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেন, তারা এই তদন্তে সহায়তা করতে চান এবং কারিগরী সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছেন।


 

 



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only