বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ, ২০২০

বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য খাদ্যসামগ্রীর ব্যবস্থা কেরল সরকারের


পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: কেরলের বিভিন্ন জেলায় পশ্চিমবঙ্গের মালদা, মুর্শিদাবাদ, উত্তর দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি সহ বিভিন্ন জেলার কয়েক লক্ষ মানুষ পরিযায়ী শ্রমিক গৃহবন্দি হয়ে রয়েছেন। তারা দিন কয়েক ধরে সে দেশের সরকার এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী প্রতি নানা আবেদন জানিয়েছিলেন। সেই আবেদনে সাড়া দিয়েছেন স্বয়ং কেরলের মুখ্যমন্ত্রী। এই সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের খাদ্য সংস্থানের ব্যাপারে এগিয়ে এলো কেরল প্রশাসন। সমস্ত শ্রমিকদের জন্য কেরালার মুখ্যমন্ত্রী প্রত্যেক ডিস্ট্রিক কালেক্টর এর কাছ থেকে খাদ্য সংগ্রহের জন্য বলেছেন।

পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে যারা কেরলের বিভিন্ন এলাকায় কাজ করেন তাদের অন্যতম ইদ্রিস আলী মন্ডল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর লাভ ডাউনের ঘোষণার পর এখানে যারা গৃহবন্দী হয়ে পড়ে রয়েছেন অনেকের কাছে টাকা নেই, অনাহার এবং অর্ধাহারে দিনযাপন করছেন। স্থানীয় বাড়ির মালিকরাও এখন আর তাদের কাজে নেন না করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় ।প্রত্যেক শনিবার তাদের হপ্তা দেয়া হয় সে সমস্ত বন্ধ হয়ে গেছে।আর এই হপ্তা পাওয়ার পরে প্রত্যেক শ্রমিক তাদের পরিবারের কাছে টাকা পাঠিয়ে দেন ফলে তাদের হাতে কিছুই থাকেনা। গত সপ্তাহে হপ্তা দেওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। যার কারণে আর্থিক সংকটের মুখে পড়েছে পশ্চিমবাংলার কয়েক লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিক। 

তিনি আরো বলেন ,পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী এবং কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে কাতর আবেদন করা হয়েছিল। সে আবেদনে সাড়া দিয়ে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী তাদের খাদ্য সংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন। যে সমস্ত পরিযায়ী কেরলের কোচি পালাঘাট সহ অন্যান্য স্থানে রয়েছেন তাদের জন্য এই খাদ্যসামগ্রীর ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি বলেন ডিস্ট্রিক কালেক্টর এর অফিসে গেলে তাদের খাদ্য দেবে কেরল সরকার।তাই তিনি বাংলার যত শ্রমিক কেরলের বিভিন্ন জেলায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে তাদের ডিস্ট্রিক কালেক্টর অফিসের যাওয়ার অনুরোধ করেন ।খাদ্য সামগ্রী গ্রহণের জন্য যে সহায়তার প্রয়োজন তার জন্য তারা দুটি হেল্পলাইন খুলেছেন। এই হেল্প লাইন দুটির নাম্বার--৮০৭৫৩৭১৯৯৭,৯০৩৭২২০০৬৮।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only