শুক্রবার, ২০ মার্চ, ২০২০

কর্মক্ষেত্রে করোনা ভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকতে কী করবেন জেনে নিন



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের থাবা ক্রমশ চওড়া হচ্ছে। কোনও ভাবেই যেন থামছে না মৃত্যুর মিছিল। এমনকী ভারতেও হামলা করেছে এই প্রাণঘাতী ভাইরাস। পাবলিক স্পেশ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বহু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। পশ্চিমবঙ্গে সরকারি অফিসের ছুটির সময়ও এক ঘণ্টা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর যারা বেসরকারি সংস্থার কর্মী? অফিসেও নিজেকে কীভাবে নিরাপদে রাখবেন? জেনে নিন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে প্রতিনিয়ত সর্তকতা জারি করা হচ্ছে। বিভিন্ন স্বাস্থ্য দপ্তর প্রশাসনের সহায়তায় স্কুল, কলেজ, অফিস, এয়ারপোর্ট ইত্যাদি জায়গায় মানুষকে সচেতন করে তোলা হচ্ছে। তবে শুধু সরকার বা স্বাস্থ্য দপ্তরই নয়, সুস্থ থাকতে   ব্যক্তিগত ভাবে সকলকেই দায়িত্ব পালন করতে হবে। পাশাপাশি সংক্রমণ প্রতিরোধ করার উপায়গুলো অপরকেও জানাতে হবে। নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নিজের নিরাপত্তার স্বার্থে অফিসে যাওয়ার সময় হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড রাব বা সোপ ডিসপেনসার কাছে রাখুন। খাওয়ার আগে এবং টয়লেট যাওয়ার পরে অবশ্যই ব্যবহার করুন।

ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন অনুসারে, অফিসে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে আলোচনা করুন বা এই ভাইরাসটি সম্পর্কে বোঝান। যাতে, কারও যদি জ্বর হয় তবে সেই ব্যক্তি যেন কিছুদিন অফিস যাওয়া বন্ধ রাখেন। করোনার সামান্যতম লক্ষণ দেখা দিলে ঘরে থাকতে বলুন এবং ঘরে থেকেই অফিসের কাজ করার পরামর্শ দিন। অহেতুক আতঙ্ক ছড়াবেন না।

অফিসে থাকাকালীন মাস্ক ব্যবহার করুন। মাস্কটি মুখ থেকে খুলে নিজের ডেস্কে বা অন্যের ডেস্কে রাখবেন না। এমনকি, হাঁচি বা কাশির সময় ব্যবহার করা রুমাল সাবধানে রাখুন।

কর্তৃপক্ষকে বলুন অফিসের কিচেন, লিফটের সুইচ, দরজার হাতল, রেস্ট রুম ইত্যাদি জায়গাগুলো জীবাণুনাশক ফিনাইল দিয়ে পরিষ্কার করতে। অফিস চলাকালীন এইসব জায়গাগুলো প্রতিদিন তিন থেকে চারবার পরিষ্কার করতে হবে।

অফিসে ঢুকে কাজ করার আগে নিজের ডেস্ক, কম্পিউটার, মাউস, কিবোর্ড টেলিফোন জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করিয়ে নিন। তারপর এগুলো ব্যবহার করুন।

অফিসের ভেতরে থাকা ডাস্টবিনটি অফিসের বাইরে রাখুন।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only