মঙ্গলবার, ১৯ মে, ২০২০

কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজে হতাশ চিদম্বরম



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: কোভিড-১৯ উদ্ভূত পরিস্থিতি অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলায় মোদি-নির্মলার নতুন অস্ত্র ২০ লক্ষ কোটি টাকার ইকনোমিক প্যাকেজ৷ কেন্দ্র সরকার এর পাঁচটি খাতও ঘোষণা করেছে৷ কিন্তু বিরোধীরা শুরু থেকেই এই 'জুমলাবাজি' বিরুদ্ধে সুর চড়াচ্ছে৷ রাহুল গান্ধি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, দরিদ্রদের হাতে টাকা দিন, ওদের ঋণ দরকার নেই৷ এবার কংগ্রেসের আর এক নেতা প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম এর বিরুদ্ধে সরব হলেন৷ নিয়ে সোমবার তিনি তার হতাশা আড়াল করেননি৷ তিনি একে নৈরাশ্যজনক অপূর্ণাঙ্গ আখ্যা দেন৷ এই প্যাকেজটিকে পুনর্বিবেচনার জন্য তিনি কেন্দ্রের কাছে অনুরোধ জানান৷ নতুন ভাবে শক্তিশালী একটি প্যাকেজের ঘোষণার দাবি জানান চিদম্বরম৷

বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম এদিন আরও বলেন, এই প্যাকেজে দরিদ্র, পরিযায়ী শ্রমিক, কৃষকশ্রমিক, কর্মীক্ষুদ্র দোকানদার মধ্যবিত্তের জন্য কোনও অর্থনৈতিক দিশা নেই৷ দিনমজুর, কৃষিকাজের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিকদের জন্যও কিচ্ছু নেই৷ ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এতে এমন বেশকিছু ঘোষণা করা হয়েছে, যা বাজেটের ব্যয়বরাদ্দে আগেই করা হয়েছিল। নতুন যে সব প্যাকেজ ঘোষণা হয়েছে, তার মোট মূল্য লক্ষ( ,৮৬,৬৫০ কোটি) কোটি টাকারও কম বলে দাবি করে তার আবেদন, অন্তত ১০ লক্ষ কোটি টাকার প্রকৃত প্যাকেজ ঘোষণা করা হোক যা জিডিপির ১০ শতাংশ৷

প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী এদিন অভিযোগ তোলেন, এই প্যাকেজ জিডিপির মাত্র .৯১ শতাংশ। যে ভয়াবহ আর্থিক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে এবং সাধারণ মানুষ যে চরম সঙ্কটে পড়েছেন, তার তুলনায় এই প্যাকেজ অপর্যাপ্ত বলে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন৷ তিনি ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, কেন্দ্র সরকার নতুন কোনও প্যাকেজ ঘোষণা না করে আর্থিক সংস্কার করে কোভিড-১৯ এর ফায়দা তুলছে৷ পার্লামেন্টে নিয়ে কোনও আলোচনাও হল না৷ সংসদীয় কমিটির একটি আলোচনা অন্তত এই প্যাকেজ ঘোষণার আগে হওয়া উচিত ছিল বলে তিনি জানান৷ মোদি সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে সংসদকে এড়িয়ে যাচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন৷ ২০২০-২১ আর্থিক বাজেটে ব্যয়বরাদ্দের প্রস্তাব ছিল ৩০ লক্ষ ৪২ হাজার ২৩০ কোটি টাকার। 

সেই বিষয়টি উল্লেখ করে চিদম্বরমের জানান, আমরা যত্নসহকারে পাঁচ কিস্তির আর্থিক প্যাকেজ বিশ্লেষণ করে দেখেছি। অর্থনীতিবিদ বিশেষজ্ঞদের, আর্থিক সংস্থা ব্যাঙ্কের সঙ্গে পর্যালোচনা করেছি। তাতে উঠে এসেছে, বাজেটে ব্যয়বরাদ্দের বাইরে মাত্র কয়েকটি খাতেই অতিরিক্ত প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। অতিরিক্ত বরাদ্দ না হলে বাজেটের অন্তর্ভুক্ত বিষয় কখনওই আর্থিক প্যাকেজ হিসেবে ধরা যায় না বলে জানান তিনি৷ অথচ এটকেই আত্মনির্ভর ভারত অভিযানের নামে ঢাকঢোল পিটিয়ে জনগণের সামনে পেশ করা হচ্ছে৷ তবে প্রকৃত সত্য কোনওদিন চেপে রাখা যায় না৷ শীঘ্রই মোদি সরকারের স্বরূপ প্রকাশ হয়ে পড়বে বলে তিনি হুঁশিয়ারি দেন৷


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only