মঙ্গলবার, ১৯ মে, ২০২০

এক নজরে আমফান নিয়ে যা সতর্কতা দিলেন মমতা

  • করোনা অবহেই রাজ্যে আসছেন আমফান।

  • কেউ কেউ বলছে এই ঝড় ভয়াবহ হবে।

  • বুলবুল ও আয়লাকেও হার মানাবে।

  • আজ থেকেই বৃষ্টি শুরু হবে।

  • কাল বেলা দুটো নাগাদ স্থলভাগের হিট করবে আমফান দক্ষিণ  ২৪ পরগণা সাগরে।

  • তারপর এই ঘূর্ণিঝড় চলবে মধ্যরাত পর্যন্ত।

  • সকালে এই ঘূর্ণিঝড় বাংলাদেশে প্রবেশ করবে।

  • ঝড়ের সময় ঘর থেকে বেরোবেন না।

  • এই ঝড় অন্য ঝড়ের মত নয়।

  • এই ঝড়ের তিনটি অংশ।

  • তিনবার আঘাত হানার সম্ভাবনা।

  • প্রথমবার ঝড়টা থেমে যাওয়ার পর এমন ভাবার কারণ নেই ঝড় থেমে গেছে।

  • শেষ দমকাটা হল লেজ। তাতেই সব গুড়িয়ে দিয়ে চলে যায়।

  • উড়িষ্যায় ফণীর সময় সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছিল এই লেজে।

  • কাল সকাল এগারোটা বারোটা থেকে গোটা রাতটা খুবই ডেঞ্জারাস। যাদের ভালো পাকা বাড়ি আছে তারাই শুধু বাড়িতে থাকুন, বাকিরা ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রে চলে আসুন।

  • এই সতর্কবার্তা কলকাতার জন্যও।

  • কারণ ঝড় যখন আসবে এতে প্রভাবিত হবে কলকাতা, দুই ২৪ পরগণা, দুই মেদিনীপুর, হুগলি হাওড়ার মত জেলাগুলি।

  • সকলেই সাবধানে থাকুন। কাঁচা বাড়ি অসুরক্ষিত পাকা বাড়ি এড়িয়ে চলুন।

  • আজ দুপুর থেকে শুরু হয়ে ঝড় কাল সকাল পর্যন্ত চলবে।

  • সাগর মৌসুনি আইল্যান্ড, ফ্রেজারগঞ্জ, কাকদ্বীপ, গোসাবা প্রভৃতি জায়গায় বাড়তি সুরক্ষা নেওয়া হয়েছে।

  • বুলবুল ও আয়লায় প্রভাবিত উত্তর ২৪ পরগণা বিস্তীর্ণ এলাকা কেউ সতর্ক করা হচ্ছে।

  • দক্ষিণ ২৪ পরগণা এখনও পর্যন্ত ২ লক্ষ মানুষকে ঘর থেকে সরিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। 

  • উত্তর ২৪ পরগণায় সরিয়ে আনা হয়েছে ৫০ হাজার মানুষকে।

  • পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় নিরাপদ আশ্রয়ের রাখা হয়েছে প্রায় ৪০ হাজার মানুষকে। পশ্চিম মেদিনীপুরে এই সংখ্যাটা দশ হাজার।

  • বুলবুলের সময় এক লক্ষ আশি হাজার মানুষকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

  • তবে এইবার সতর্কতার জন্য প্রায় ৩লক্ষ মানুষকে ঘর থেকে সরিয়ে অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

  • ইতিমধ্যেই যেখানে ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা সেখানে ন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট, ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট এর টিম পৌঁছে গিয়েছে।

  • সকলকে অনুরোধ প্রশাসনের কাছ থেকে ক্লিয়ারেন্স না পাওয়া পর্যন্ত আপনারা কেউ নিরাপদ আশ্রয় থেকে বের হবেন না।

  • পরিযায়ী শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার বিষয়টি ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বুধবার বন্ধ রাখার জন্য কেন্দ্রকে অনুরোধ করছি।

  • এই অবস্থার মধ্যে তারা ফিরলে বিপদের মধ্যে পড়তে পারে। আমরা চাইনা কারও কোনও সমস্যা হোক।

  • ঘূর্ণিঝড়ের সময় কোন বিপদে পড়লে প্রশাসনের সাহায্য নিতে হেল্প নাম্বার ২২১৪৩৫২৬,২২১৪১৯৯৫,টোল ফ্রি নম্বর-১০৭০

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only