রবিবার, ১৭ মে, ২০২০

ঢাকিদের পাশে 'তরুণের আহ্বান'



দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট

ঈদের পরেই পুজো। আর পুজোর গন্ধ আসতেই ঢাকিদের বাইরে পা রাখা। তাদের জীবনে দুঃখ কষ্ট অনেকটাই বাংলা সিনেমা 'ঢাকি'র নেতাইয়ের মতো। সেই সব নেতাই অর্থাৎ রামপুরহাটের জেঁদুর ও শিবপুরের কার্তিক বায়েন, মুক্তি বায়েন, উপেন বায়েন, নানু বায়েনদের হাতে জাদু হয়তো এবার দেখা যাবে কিনা হলফ করে কেউ বলতে পারে না। করোনা আবহে তাদের ঢাকে কাঠি পড়ুক আর না পড়ুক, আপাততঃ তাদের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসেছে রামপুরহাটের তরুণের আহ্বান ক্লাবের সদস্যরা। 
তরুণের আহ্বান ক্লাব সারা বছর বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ করে থাকে। দুর্গা পুজোর আয়োজনও জাঁকজমকপূর্ণ করে,কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি একেবারে ভিন্ন।কোরোনা সব হিসেব নিকেশ পাল্টে দিয়েছে।বহু মানুষ আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত,অসহায়।তাই  দুর্গাপূজোর সঙ্গে যারা অঙ্গাঅঙ্গী ভাবে জড়িত সেই ঢাকি এবং মৃৎশিল্পী দের পাশে এই দুর্দিনে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে তাঁরা। 

তরুণের আহ্বানের পক্ষে কৃষ্ণ চৌধুরী বলেন,  এই ঢাকি বা মৃৎশিল্পীদের  ছাড়া পুজো হয় না।তরুণের আহ্বান পক্ষ থেকে আজ আমরা তাদের পরিবারের হাতে  চাল,ডাল,আলু,পাঁচরকম সব্জি,সুজি,দুধ,মুড়ি,সাবান ইত্যাদি তুলে দিলাম।যারা দুর্গা পুজোর সঙ্গে অঙ্গাঅঙ্গী ভাবে জড়িত তাদের মুখে হাসি ফুটলেই আমাদের মানসিক শান্তি,ওরা ভালো থাকুক। উপস্থিত ছিলেন সমাজসেবী আনারুল হোসেন,পান্থ দাস এবং জহিরুল ইসলাম ও  শিল্পী তীর্থ মুখোপাধ্যায়।  এভাবে বিভিন্ন ক্লাব এগিয়ে আসলে শিল্পীরা ভালো থাকবে। ওরা ভালো থাকলেই আমাদের পুজোও ভালো হবে।

অন্যদিকে, শান্তি নিকেতনের প্রান্তিকে লোকনাথ বাবা আশ্রমের মহারাজ দুস্থ মানুষদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। পাশাপাশি, দুঃস্থ মায়েদের সন্তানদের জন্য ল্যাকটোজেন ও হরলিক্স সরবরাহ করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only