সোমবার, ১৮ মে, ২০২০

যুদ্ধবাজরা বিশ্বে ঘৃণিত সিরিয়া-ইরাক থেকে তল্পিতল্পা গোটাতে হবে আমেরিকাকে



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: যুদ্ধবাজদের বিরুদ্ধে ফের একবার সুর চড়ালেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আল খামেনেয়ি তাঁর মতে ইরাক সিরিয়া থেকে তল্পিতল্পা গুটিয়ে পালানোর সময় এসেছে আমেরিকার আমেরিকা নিজে না গেলে ইরানই সেই ব্যবস্থা করে দেবে খামেনির মতে, বিশ্বের বৃহৎ অংশ মার্কিন সরকারের দীর্ঘদিনের এই পারফরমেন্স প্রত্যাখ্যান করেছে সময় তিনি আমেরিকাকে ‍‌‌‌‌‌‌'যুদ্ধবাজবলে অভিযুক্ত করেন 

বলেন, কুখ্যাত সরকারগুলোকে সহায়তা করছে আমেরিকা তারা প্রশিক্ষণ দিচ্ছে সন্ত্রাসীদের তাদে শর্তহীন সমর্থন দিচ্ছে রাজধানী তেহরানে রাজনৈতিক, বিজ্ঞানী সাংস্কৃতিক সংগঠনের শিক্ষার্থী দলের সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখছিলেন আমেরিকা তার মিত্ররা, মাঝে মাঝে ইউরোপিয়ান কিছু শীর্ষস্থানীয় দেশ ইরানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছে যে, তারা অন্য দেশে উগ্রপন্থা ছড়িয়ে দিচ্ছে 

কিন্তু খামেনি যে বক্তব্য রেখেছেন, তাতে তিনি ঠিক একই রকম অভিযোগ তুলেছেন আমেরিকার বিরুদ্ধে তিনি আরও বলেন, মার্কিনিরা স্পষ্ট করে বলেছে, তারা তেলের জন্য সিরিয়ায় তাদের বাহিনী মোতায়েন করেছে কিন্তু ইরাক সিরিয়ায় টিকতে পারবে না মার্কিনিরা তাদেরকে বের করে দেওয়া হবে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আরও বলেন, বিশ্বের বহু দেশে এমনকি আমেরিকার ভেতরেও মার্কিন পতাকায় অগ্নিসংযোগ করা হয়, আর ঘটনা বিশ্ববাসীর অন্তরে আমেরিকার প্রতি ঘৃণার মাত্রা তুলে ধরে 

সর্বোচ্চ নেতা এও বলেন, বর্তমান মার্কিন প্রশাসনের প্রতি বিশ্ব জনমতের ঘৃণার প্রধান কারণ, সেদেশের প্রেসিডেন্ট বিদেশমন্ত্রীর বেপরোয়া যুক্তিহীন আচরণ এবং বাগাড়ম্বর অবশ্য দীর্ঘমেয়াদে আমেরিকা বিশ্বব্যাপী গণহত্যা, অপরাধযজ্ঞ, সন্ত্রাসবাদে মদত ইসরাইলকে পৃষ্ঠপোষকতা প্রদানের কারণে নিন্দিত ঘৃণিত হয়েছে সাম্প্রতিক সময়ে অর্থনীতি করোনা ভাইরাস সামাল দিতে না পারার কারণে আমেরিকার অভ্যন্তরে বর্তমান মার্কিন প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ বেড়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন খামেনির কথায়, আমেরিকার বলদর্পিতার বিরুদ্ধে শক্তিশালী প্রতিরোধ গড়ে তোলার কারণেই বিশ্বব্যাপী ইরান সুখ্যাতি সম্মান অর্জন করেছে তবে ইরানি জনগণের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি এবং ইরানের ভাবমর্যাদা ক্ষুন্ন করার চেষ্টা আমেরিকা ছাড়েনি


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only