সোমবার, ২২ জুন, ২০২০

‘সারেন্ডার’ মোদি! ফের খোঁচা রাহুলের

নয়াদিল্লি, ২১ জুনঃ ‘সারেন্ডার মোদি’। ব্যস! এটুকুই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিশানা করে ছোট্ট একটা টু্ইট। আর তাতেই তোলপাড় দেশের জাতীয় রাজনীতি। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, একেবারে মোক্ষম জায়গায় খোঁচা দিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধি। রাহুলের এই ‘গুগলি’ এবার সামলাক গেরুয়া ব্রিগেড।

আসলে শনিবার কংগ্রেস যে অভিযোগ করেছিল সেটাকেই আর একটু ধারালোভাবে এ দিন প্রয়োগ করেন রাহুল। সর্বদল বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, চিন সীমান্ত পেরিয়ে ভারত ভূখণ্ডে ঢুকতেই পারেনি। ভারতের কোনও সেনা পোস্টও দখল করতে পারেনি। 

প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্য নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। সরাসরি প্রশ্ন তোলে কংগ্রেস। রাহুল গান্ধি, রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা, পি চিদম্বরম, কপিল সিব্বাল সহ একাধিক প্রথম সারির কংগ্রেস নেতা প্রশ্ন তোলেন, চিন যদি ভারত সীমান্তে না-ই ঢুকবে তাহলে এতগুলো ভারতীয় সেনার মৃত্যু হল কেন? ঠিক কোনও জায়গায় এই ২০ জন সেনার মৃত্যু হয়েছে? আর রাহুল বলেছিলেন, ভারতীয় ভূখণ্ডের বিনিময়ে চিনের আগ্রাসনের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। চিন ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করতে পারেনি মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী আসলে চিনকেই ক্লিনচিট দিলেন। 

রাহুলের রবিবারের মন্তব্য আগের মন্তব্যেরই রূপান্তর। লাদাখে চিনা হামলা নিয়ে এ দিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘সারেন্ডার মোদি’ বলে কটাক্ষ করেন। রাহুলের টু্ইট, নরেন্দ্র মোদি আসলে ‘সারেন্ডার মোদি’। অর্থাৎ, রাহুল বলতে চেয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর নাম এখন আর নরেন্দ্র মোদি নয়, ওনার নাম হওয়া উচিত ‘সারেন্ডার মোদি’। কারণ, উনি চিনের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। 

উল্লেখ্য, জাপানের একটি খবরের কাগজের শিরোনাম উদ্ধৃত করে এই টু্ইট করেন রাহুল। তবে রাহুলের এই মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছে বিজেপি। বিজেপির মুখপাত্র শাহনওয়াজ হুসেন বলেন, এমনকী শত্রু দেশগুলিও মোদিজি সম্পর্কে এই ধরনের মন্তব্য করে না। রাহুল গান্ধি সব সৌজন্যবোধ হারিয়ে ফেলেছেন। ওঁর অবিলম্বে ক্ষমা চাওয়া উচিত।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only