সোমবার, ২৯ জুন, ২০২০

বহুল আলোচিত প্রশ্ন ‘টিকটক’ কি এবার বন্ধের মুখে?

টিকটক বর্তমান প্রজন্মের কাছে এক অতি পরিচিত নাম। কখনও উৎসবে, কখনও বা কোনও ভ্রমণে বেরোলে টিকটক ভিডিও বানানোর প্রবণতা এ প্রজন্মে বেড়েই চলেছে। আর তোলা সেই টিকটক ভিডিও ফেসবুক ওয়ালে বা ইউটিউবে পোস্ট করলে অসংখ্য লাইক, কমেন্টে ভরে উঠবে। অনেকে আবার টিকটক বানিয়ে ঝুলিতে পড়েছে টাকাও। এমনই নেশায় মগ্ন এই প্রজন্ম। কোন পরিবেশে কত ভালো টিকটক বানানো যায়, তারই খোঁজ করেন সকলে। কিন্তু সেই টিকটক ভিডিও নিয়েও বিপত্তি কম হয়নি! সেই টিকটক ভিডিও কখনও মৃত্যু বা জীবনের  ফাঁদ হয়ে ওঠে? আজ যেন টিকটক-সুখে অনেকেই জীবনকে  বাজি রাখতেও  প্রস্তুত। আসলে লাইক, কমেন্ট ও সাবক্রাইবারের প্রতিযোগিতার লড়াইয়ে সেই টিকটক ভিডিয়োর  পেছনে ছুটে চলেছেন এই প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা। নেটিজেনদের নজরও সেইদিকে। টিকটক ভিডিয়োর দৌলতে অনেকেই হয়ে উঠেছেন স্টার বা অনেকে স্টার হওয়ার স্বপ্নও দেখছেন।

এবার আসা যাক টিকটক  অ্যাপ্লিকেশন  কী?   টিকটক একটি সংগীত ভিডিও প্ল্যাটফর্ম, যার সূত্রপাত প্রথম হয়েছে চিন দেশে ২০১৬ সালে । চিনের নামকরণ হয় ডুইয়িন, যার প্রতিষ্ঠাতা হলেন ঝাং ইয়েমিং নামক এক চিনা নাগরিক। এটি এমনই একটি জনপ্রিয় অ্যাপ্লিকেশন, যা ২০১৮ সালের প্রথম ত্রৈমাসিকে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড করা অ্যাপ্লিকেশন ছিল এটি। ভারতেও ক্রমবর্ধমানভাবে বেড়েছে এর জনপ্রিয়তা ও ব্যবহার।  আজ সবচেয়ে  বেশি জনপ্রিয় ও  প্রচলিত শর্ট ভিডিও প্লার্টফর্ম হিসেবে আজ জনপ্রিয়তায় দাঁড়িয়ে রয়েছে । 

কিন্তু প্রশ্ন হল, ভারতে কি এই জনপ্রিয় টিকটক বন্ধ হতে চলেছে? আজ এই প্রশ্নটিই সম্প্রতি ঘুরছে সর্বত্র। সম্প্রতি ভারতের লাদাখ সীমান্তে চিনা সেনাদের বিশ্বাসঘাতকতা করা এবং সংঘর্ষের পরিণতি হিসেবে দেশের সর্বত্র জোরালো হয়েছে এবার চিনা দ্রব্য বর্জনের। বিভিন্ন সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে নেটিজেনরাও ‘মেড ইন চায়না’ বর্জনে সরব হয়েছেন। সেক্ষেত্রে টিকটক  অ্যাপ্লিকেশন যেহেতু চিনদেশে প্রস্তুত এক অ্যাপ্লিকেশন তাই টিকটক বন্ধের পক্ষে সওয়াল করেছেন অনেকেই। অনেকেই চাইছেন, এই অ্যাপ বন্ধ হোক--- হয়তো তাতে কিছুটা হলেও চিনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো সম্ভব হবে?  এমনই প্রশ্ন ঘুরছে এখন সর্বত্র। টিকটকপ্রেমীরাও চেয়ে আছে এই প্রশ্নের দিকে?
শংকর সাহা
পতিরাম, দক্ষিণ দিনাজপুর  

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only