রবিবার, ২৮ জুন, ২০২০

গুরুগ্রামের পর এবার কাশগঞ্জ, পঙ্গপালের হামলায় ঢাকল আকাশ

নয়াদিল্লি, ২৮জুন: মাঝে কয়েকদিনের বিরতি। তারপর ফের শুরু উপদ্রপ। গুরুগ্রামের পর এবার পঙ্গপালের হামলা উত্তরপ্রদেশের কাশগঞ্জে। শনিবার উদ্ভিদখেকোদের ভয়ে ঘরের জানালা-দরজা বন্ধ রাখতে বাধ্য হন অনেকেই। কেউ কেউ আবার পঙ্গপালের সেই ছবি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। লোকাস্ট ওয়ার্নিং অর্গানাইজেশনের তরফে রবিবার পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার কথা কার্যত স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। 

কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রকের অধীনে পঙ্গপাল সতর্কীকরণ বিভাগের পদস্থ কর্তা কে.এল গুজ্জর জানান, 'আমরা পুরোপুরি পঙ্গপালের ঝাঁক নিয়ন্ত্রণ করতে পারিনি। রবিবার ভোরে তারা ফের হানা দেয়। পঙ্গপাল তাড়াতে দমকল দফতরের ৭টি দল, ড্রোন ছাড়াও যানবাহনে স্প্রে লাগানোর ব্যবস্থা রেখেছি। উদ্ভিদ খেকোদের নিয়ন্ত্রণ করতে আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি। রবিবার রাতে ফের পঙ্গপাল নিধনের কাজ শুরু হবে।'

এদিকে ছুটির দিনে পঙ্গপালের ঝাঁকে ঢেকে যায় গোটা আকাশ। ঢোল, কাঁসর, থালা বাজিয়ে ক্ষতিকর প্রাণীদের তাড়াতে মরিয়া প্রয়াস চালান স্থানীয়রা। কীটনাশক স্প্রে করা হচ্ছে বহু জায়গায়। পঙ্গপালের হানার মুখে পড়েছে গুরুগ্রামের সাইবার হাব। দক্ষিণ-পশ্চিম দিল্লিও তাণ্ডবমুক্ত নয়। কেন্দ্রীয় কূষিমন্ত্রক জানিয়েছে, সাত রাজ্যে ৬০টি দল এবং ১২টি ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে পঙ্গপাল মারতে। 
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গত মে মাসের মতো জুলাই মাসেও রাজস্থান, হরিয়ানা এবং উত্তরপ্রদেশে হানা দিতে পারে পঙ্গপালের ঝাঁক।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only