রবিবার, ২১ জুন, ২০২০

আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই কলকাতায় আর বস্তি থাকবে নাঃ­ ফিরহাদ

পুবের কলম প্রতিবেদকঃ­ ঘিঞ্জি কাঁচা চালাঘর। ঠাসাঠাসি করে অনেক মানুষের বাস। স্বল্প সংখ্যক বাথরুম-পায়খানায় লম্বা লাইন। একটি কলেই অনেক মানুষের হুড়োহুড়ি। একইসঙ্গে পূতিগন্ধময় পরিবেশ। কলকাতা মহানগরীর বড় ক্ষত হিসাবে চিহ্নিত এই বস্তির চেহারাটাই বদলাতে চাইছেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। বস্তির জায়গায় বহুতল আবাসন নির্মাণ করে বস্তিবাসীদের মুক্ত জীবনযাপনের ব্যবস্থা করতে চাইছে কলকাতা পুরনিগম। 

শনিবার এই পরিকল্পনার কথা ব্যক্ত করলেন ফিরহাদ হাকিম। ক’দিন আগেই দক্ষিণ শহরতলির কামালগাজিতে বারুইপুর বাইপাস সংস্কারের শিলান্যাস অনুষ্ঠানে রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেছিলেন, রাজ্য একইসঙ্গে বিভিন্ন কঠিন পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করছে। একদিকে করোনা, অন্যদিকে আমফান তাণ্ডবে তছনছ হয়ে গিয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু অংশ। 

অন্যদিকে, লকডাউন আবহে রাজ্যের মানুষের অবস্থাও ভালো নয়। সরকারের রাজস্ব আদায় তলানিতে, তারপরেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার উন্নয়নের কাজ করে যাচ্ছে। সরকার উন্নয়নকেই পাখির চোখ করছে। সে কথাও স্মরণ করান তিনি। রিয়েল এস্টেট থেকে শিল্প সবেতেই সরকার উন্নতি চায়। রাজ্য সরকার বস্তিবাসীদেরও উন্নয়নের সুফল পৌঁছে দিতে তৎপর। তাই ‘বাংলার বাড়ি’ প্রকল্পে শহরে তৈরি হচ্ছে আবাসন। ওই প্রকল্প সফল হলে আরও বেশি করে আবাসন তৈরি করা হবে। বস্তি বলতে যে ঘিঞ্জি এদোঁগলির ছবি ফুটে ওঠে। তা আর থাকবে না। বদলে যাবে চেহারা। 

শনিবার মার্চেন্টস চেম্বার্স অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে এক ভিডিয়ো বৈঠকে এমনই আশা ব্যক্ত করেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী তথা কলকাতার পুর-প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। বিভিন্ন নির্মাণ সংস্থা ও বণিকসভাগুলি কীভাবে উন্নয়নে অংশগ্রহণ করতে পারে বা তাদের নানান সমস্যা ও সমাধানের রাস্তা কী হতে পারে। তা নিয়ে কথা বলছিলেন ফিরহাদ হাকিম। সেখানই বস্তি উন্নয়নে সরকারের প্রচেষ্টার কথা প্রকাশ করেন তিনি। 

এ দিন ফিরহাদ হাকিম জানান, সরকার বস্তি এলাকার জন্য বাংলার বাড়ি প্রকল্প শুরু করেছে। যেখানে আমরা চারতলা বাড়ি বানাচ্ছি। তিনি উল্লেখ করেন, ইতিমধ্যেই ৬০ নম্বর রাখাল দাশ রোডে বাড়ি তৈরি হয়ে গিয়েছে। ফিরহাদ হাকিম বলেন, শহরের আরও কয়েক জায়গায় বাংলার বাড়ি তৈরি হচ্ছে। যদি এই প্রকল্প সফল হয়, তবে আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই কলকাতায় আর বস্তি থাকবে না। তিনি আরও জানান, যেমন অন্যান্য সাধারণ নাগরিকরা আবাসনে থাকেন, তেমনি বস্তিবাসীরাও ফ্ল্যাটে থাকবেন। নিজস্ব বাথরুম, ব্যালকনি ব্যবহারের সুবিধা পাবেন। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only