রবিবার, ২১ জুন, ২০২০

বাবরি ধ্বংস মামলায় ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে আদালতে হাজিরা দেবেন আদবানি, যোশী, উমা ভারতীরা

পুবের কলম,  লখনউ: বিজেপির একসময়ের তাবড় নেতারা এবার বাবরি ধ্বংস মামলায় হাজিরা দিতে চলেছেন জুন ও জুলাইয়ে৷ কেন্দ্রের শাসক দলের মার্গদর্শক মণ্ডলের অংশ লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলিমনোহর যোশী, উমা ভারতী, ধ্বংসের সময়ে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিং ও শ্রী রামজন্ম ভূমি তীর্থ ক্ষেত্র ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মহন্ত নিত্য গোপাল দাসকে সিবিআই কোর্ট এ ব্যাপারে শমন জারি করেছে৷ আদালতের সামনে তাদের হাজিরা দিতে হবে ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে৷ কোভিড-১৯ ও লকডাউনের জন্যই এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে৷

১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর সাড়ে চারশো বছরের অধিক সময় ধরে অযোধ্যাতে দাঁড়িয়ে থাকা ঐতিহাসিক ইমারত বাবরি মসজিদ গুঁড়িয়ে দেয় উন্মত্ত করসেবকরা৷ সেই সময় ঘটনাস্থলের কাছেই আদবানি, উমা ভারতীরা হাজির থেকে মসজিদ ভাঙতে ইন্ধন জুগিয়েছেন বলে দাবি করা হয়৷ তৎকালীন কল্যাণ সিংয়ের প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তাকেও এর জন্য দায়ী করা হয়৷ গত বছর বাবরির জমি নিয়ে যে মামলা চলছিল, তার রায় দেয় দেশের সুপ্রিম কোর্ট৷ হিন্দুপক্ষকেই মসজিদের জমি দিয়ে দেওয়া হয় মন্দির নির্মাণের জন্য৷ 

তবে মসজিদ ভাঙার মামলা এখনও চলছে৷ সেই মামলাতেই হাজিরা দেবার জন্য এক সময়ের দোর্দণ্ডপ্রতাপ হিন্দুত্ববাদি নেতা আদবানিকে (মোদির আমলে সাইডলাইন হয়ে গেছেন) ভিডিয়ো লিঙ্কের মাধ্যমে তার নয়াদিল্লির বাসস্থান থেকেই হাজিরা দেবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ 

মুরলি মনোহর যোশী১ জুলাই, কল্যাণ সিং ২ জুলাই, মহন্ত গোপাল দাস ২৩ জুন, সাধ্বি ঋতাম্ভরা ২৯ জুন, উমা ভারতী ৩০ জুন  ও  ফৈজাবাদের (এখন অযোধ্যা) তৎকালীন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরএম শ্রীবাস্তবকে ২২ জুন হাজির থাকার নির্দেশ পাঠিয়েছে সিবিআইএর বিশেষ আদালত৷ বিজেপির এই সমস্ত নেতারা বাবরি ধ্বংসের ষড়যন্ত্রে অভিযুক্ত ৩২ জনের মধ্যে রয়েছেন৷ ৩২ জনের মধ্যে ৯জনকে ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে আদালতে হাজির থাকার নির্দেশ দিয়েছে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত৷

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only