শুক্রবার, ২৪ জুলাই, ২০২০

আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে ব্যবসায়ীদের কত সময়সীমা বেঁধে দিলেন মমতা?



পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: ক্রমাগত বাড়তে থাকা আলুর দাম নিয়ে ক্ষুব্ধ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে এবার পদক্ষেপ করল নবান্ন।দাম কমানোর জন্য ব্যবসায়ীদের পাঁচদিন সময় বেঁধে দিল প্রশাসন। একইসঙ্গে কোল্ড স্টোরেজে আলু মজুত রাখার পরিমাণও নির্দিষ্ট করে দেওয়া হল এদিন। খোলা বাজারে যাতে আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে আসে তাই সুফল বাংলার মাধ্যমে রাজ্য সরকারের তরফে কম দামে আলু বিক্রিরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

গত কয়েক দিন ধরে লাগাতার বেড়েই চলেছে আলুর দাম। বেশিরভাগ খোলা বাজারে জ্যোতি আলু বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা কিলো দরে। চন্দ্রমুখী আলু ৩৫ টাকা কিলো দরে বিক্রি হচ্ছে।কলকাতা থেকে শুরু করে জেলা হয়ে গ্রামীণ এলাকা, সব জায়গায় ছবিটা একই রকম। এতেই ক্ষুব্ধ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। টাস্কফোর্সের সঙ্গে মিটিংয়ে অবিলম্বে আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

এদিন আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে কী করনীয় তা নিয়ে নবান্নে একটি বৈঠক হয়। সেখানেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, রবিবার থেকে রাজ্য সরকারের সুফল বাংলার স্টলে ২৫ টাকা করে প্রতি কিলো আলু বিক্রি করবে সরকার। এছাড়া আলুর দাম কমানোর জন্য ব্যবসায়ীদের পাঁচদিন সময় দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে দাম নিয়ন্ত্রণে না এলে পদক্ষেপ নেবে সরকার।

মুখ্যমন্ত্রী গড়া টাস্কফোর্সের সদস্য রবীন্দ্রনাথ কোলে বলেন, আলুর চাহিদা বাড়ার জন্যই দাম বেড়েছে। রাজ্যে আলুর উৎপাদনে কোনও খামতি নেই। কিন্তু এ রাজ্য থেকে বিহার, ঝাড়খণ্ড, ছত্তীসগড় ও ওড়িশাতে আলু রফতানি করা হচ্ছে। ফলে উৎপাদন বেশি হলেও চাহিদা অনুযায়ী যোগান কমছে।
তিনি আরও জানান, দাম বাড়ার আরও একটি কারণ হল আলু মজুত রাখা। দাম বাড়ানোর জন্য কোল্ড স্টোরেজে অনেকে আলু মজুত রাখছেন। ফলে বাজারে আলুর যোগান কম হচ্ছে। দাম বাড়ছে। এই কারণে সরকার এদিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে, কোল্ড স্টোরেজে ৪০ বস্তার বেশি আলু কেউ মজুত করে রাখতে পারবেন না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only