মঙ্গলবার, ৭ জুলাই, ২০২০

জেল থেকে খোলা চিঠিতে কি বার্তা দিলেন প্রতিবাদী কাফিল ?



পুবের কলম,ওয়েব ডেস্ক: আমি জানি না কেন আমাকে শাস্তি পেতে হচ্ছে৷ আমি জানি না কখন আমার স্ত্রী, মা, ভাই, বোন সন্তানদের দেখতে পাব৷ খোলা চিঠিতে এভাবেই আক্ষেপ করেছেন যোগী সরকারের আক্রোশের শিকার হয়ে উত্তর প্রদেশের মথুরা জেলে থাকা ডাক্তার কাফিল খান৷ গোরক্ষপুরে শিশুমৃত্যুর সময় বহু শিশুর প্রাণরক্ষা করে শিরোনামে এসেছিলেন এই সাহসী ডাক্তার৷ কিন্তু একজন সংখ্যালঘুর 'বাড়বাড়ন্ত' সহ্য হয়নি যোগী আদিত্যনাথের বিজেপি শিবিরের৷ তাই মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে বারবার তাকে অপদস্থ করার প্রক্রিয়া অব্যাহত৷ সিএএ বিরোধী অবস্থান নেওয়ার জন্য জাতীয় নিরাপত্তা আইনে তাকে বন্দি করা হয়েছে৷ জেল থেকেই তিনি মর্মস্পর্শী খোলা চিঠি লিখে নিজের মনোভাব ব্যক্ত করেছেন৷ জেলে তাকে খুবই অত্যাচার করা হচ্ছে৷ জেলের ভেতরের অবস্থাকে জাহান্নামের সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি৷

জেলের ভেতরের অবস্থা বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি লিখেছেন, সেখানকার অবস্থা খুবই খারাপ, অস্বাস্থ্যকর, দমবন্ধ হয়ে যায়৷ যে জেলে ৫০০ জন থাকা যায়, সেখানে রাখা হয়েছে ১৬০০ জনকে৷ ফলে আরও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ তৈরি হয়েছে৷ একটি টয়লেট ব্যবহার করছে ১২৫-১৫০ জন৷ প্রস্রাব ঘামের দুর্গন্ধ এবং বিদ্যুৎ না থাকলে গরমের ফলে অসহ্য হয়ে উঠেছে জীবন৷ এক জীবন্ত জাহান্নাম৷ কয়েক ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার পর টয়লেটে ঢোকার পর আসে ঝাঁক ঝাঁক মশা, মাছি৷ এই পরিস্থিতি তার মতো ডাক্তারকে কখনও পড়তে হয়নি৷ ফলে তিনি সহ্য করতে না পেরে বমি করেও ফেলেন৷ কাফিল খানের খোলা চিঠি থেকে জানা যাচ্ছে, জেলে তাকে যে খাবার দেওয়া হয় তা খাওয়ার যোগ্য নয়৷ তাকে দেখতে আসা লোকজনেদের দেওয়া ফল খেয়েই তার দিন কাটত৷ তবে লকডাউন শুরু হবার পর থেকে সেটাও বন্ধ হয়ে গেছে৷

কাফিল খান খোলা চিঠিতে আরও লিখেছেন, ব্যারাকটিকে মনে হয় মাছের বাজার৷ কেউ কাশছে, থুতু ফেলছে, প্রস্রাব করছে৷ কেউ আবার কারও সঙ্গে ঝগড়া করছে৷ এই পরিস্থিতি তার ঘুম হয় না মোটেই৷ সকালের জন্য অপেক্ষা করে তাকে রাত পার করতে হয়৷ পড়াশোনার চেষ্টা করেন৷ কিন্তু মনোযোগ দিতে পারেন না৷ জেলে এই নারকীয় অবস্থার কথা পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনরা গর্জে উঠেছে৷  তার মুক্তির দাবি জানাচ্ছেন সবাই৷ কিন্তু যোগী সরকারের কানে সে কথা পৌঁছাচ্ছে না৷ এর আগে একটি চিঠিতে কাফিল খান মোদিকে অনুরোধ জানিয়েছিলেন মুক্তি দিয়ে কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইতে তাকে শামিল করে নিতে৷ এই চিঠিতেও তিনি দেশের সংকটজনক পরিস্থিতিতে নিজেকে ফের উৎসর্গ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন৷ কিন্তু প্রতিশোধপরায়ণ বিজেপি সরকার সে কথায় এখনও কর্ণপাত করেনি৷ জেলে গ্যাংস্টারচোর, ধর্ষক, গুন্ডাদের সঙ্গে অসহনীয় জীবন কাটাচ্ছেন গোরক্ষপুরের ডাক্তার কাফিল খান৷


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only