বুধবার, ২২ জুলাই, ২০২০

গরু, ছাগল, হাঁস মুরগির মরক, তাই ডাইনি অপবাদে আদিবাসী মহিলা গ্রাম ছাড়া: গুণিনের ফতোয়া!

-প্রতীকী চিত্র
দেবশ্রী মজুমদার, বোলপুর:
গ্রামে  গরু,  ছাগল, হাঁস মুরগির মরক, তাই ডাইনি অপবাদে গুণীনের ফতোয়ায় এক আদিবাসী মহিলার পরিবারকে গ্রাম ছাড়া করল এলাকাবাসী।  ঘটনাটি বোলপুর থানার সিয়ান-মুলুক গ্রাম পঞ্চায়েতের মণিকুন্ডতলা গ্রামে। এই বিষয়ে বোলপুর থানায় অভিযোগ করেন ওই মহিলা। 
আদিবাসী অধ্যুষিত বোলপুর থানার সিয়ান-মুলুক গ্রাম পঞ্চায়েতের মণিকুণ্ডতলা গ্রাম। গত কয়েক মাস ধরে এই গ্রামে বেশ কয়েকজন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। একের পর এক গরু ছাগল হাঁস মুরগি মরছে। সেই ঘটনার কারন খুঁজতে গ্রামের কযেকজন মিলে ওঝা গুনিনের কাছে যায। তার নিদান মত মণিকুন্ডতলা গ্রামের যশোমতি হাঁসদাকে ডাইনি বলে চড়াও হয় গ্রামের সকলো। 

জানা গিয়েছে, যশোমতি হাঁসদা ও তার পরিবার বাড়িতে পুজো করে। তাই গ্রামের একাংশ বাসিন্দার মনে সন্দেহ দানা বাঁধে ওই মহিলার উপর। ডাইনি সন্দেহে ওই মহিলার উপর চড়াও হয় গ্রামের কিছু লোকজন। অভিযোগ মঙ্গলবার দুপুরে ওঝা গুনিনের নিদান পেয়ে গ্রামের লোকজন মোডল পটল টুডু সঙ্গে আলোচনায় বসে। 

এরপরেই বেলা তিনটে নাগাদ যশোমতি বাড়িতে চড়াও হয় গ্রামের লোকজন। ওদেরকে ফতোয়া দেওয়া হয় গ্রাম থেকে চলে যেতে। ওরা যেতে অস্বীকার করলে গ্রামের লোকজন এক সঙ্গে যশোমতিকে ডাইনি বলে চিৎকার করতে থাকে। যশোমতি তিন ছেলে প্রতিবাদ করলে গ্রামের লোকজন  মারধর শুরু করে। পরে পুরো পরিবারকে গ্রাম ছাড়া করা হয় বলে অভিযোগ। 

যশোমতি হাঁসদার ছেলে রাম হাঁসদা বলেন, "গ্রামে লোক মরছে বলে কযেকজন মিলে ডাইনি খুঁজতে ওঝাগুনিনের কাছে যায়। সেখানেই আমার মাকে ডাইনি বলা হয। তারপর সবাই মিলে মোডলকে নিয়ে সভা করে আমাদেরকে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দিল। বাচ্চা-মা-স্ত্রীদের নিয়ে ঘুরছি রাস্তায় রাস্তায়।" 

তারা পরিবারে ১২ জন রয়েছেন। তাদের মধ্যে চার জন মহিলা চার জন বাচ্চা চার জন পুরুষ। মঙ্গলবার বিকেল থেকেই তারা গ্রাম ছাড়া। বৃষ্টি মাথায় নিয়ে তাদেরকে মারতে মারতে গ্রামের বাইরে বের করে দেওয়া হয়। রাতে মুলুক তৃণমূল কার্যালয়ে এসে আশ্রয় নেন ওই পরিবার। বুধবার  সকালে বোলপুর থানায় এসে অভিযোগ করেন তারা। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনার তদন্ত করে দেখছেন।

আহত ওই মহিলা যশোমতি হাঁসদা বলেন, "গ্রামের লোক মোডলকে সঙ্গে নিয়ে একজোট হয়ে আমাকে ডাইনি বলে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দিল। আমি ডাইনি তাই আমাদের গোটা পরিবারকে মেরে গ্রামে থাকা যাবে না বের করে দিল। আমি মোডল, অন্য লোকদের পায়ে ধরে বললাম আমি ডাইন নই তবুও ওরা তাড়িয়ে দিল।"

অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে বোলপুর থানার পুলিশ। জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিং বলেন, "ঘটনা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। ওই পরিবারকে গ্রামে ফেরানোর উদ্যোগ শুরু হয়েছে।"

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only