শুক্রবার, ২৪ জুলাই, ২০২০

প্রয়াত নৃত্যশিল্পী অমলাশঙ্কর, মুখ্যমন্ত্রীর শোকবার্তা


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক:  গত মাসেই লকডাউনের মধ্যেই ১০১ তম জন্মদিন পালন করেছিলেন। করোনা আবহে তিনি যাতে সুস্থ থাকেন সাক্ষাৎকারে এই শুভ কামনাই জানিয়ে ছিলেন কন্যা মমতা শঙ্কর। কিন্তু, শুক্রবার ভোরেই শহরবাসীর ঘুম ভাঙল দুঃসংবাদে । শতায়ু প্রবীন নৃত্যশিল্পী অমলাশঙ্কর প্রয়াত। তারই সঙ্গে শেষ হল উদয়শঙ্করের তৈরি করা নৃত্যজগতের একটা গোটা প্রজন্মের অধ্যায়।
পরিবারের সঙ্গে অমলাশঙ্কর
I
প্রয়াত শিল্পীর নাতনি তথা আনন্দ ও তনুশ্রী শঙ্করের একমাত্র  শ্রীনন্দাশঙ্কর এদিন সকালে তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডল থেকে এই দুঃসংবাদ জানিয়েছেন। ঠিক কী কারণে তাঁর মৃত্যু তা এখনও স্পষ্ট করা হয়নি। 
১৯১৯ সালের ২৭ জুন তাঁর জন্ম। ১৯৩১ সালে মাত্র ১১ বছর বয়সে তিনি অংশগ্রহণ করেন প্যারিসের ইন্টারন্য়াশনাল কলোনিয়াল এগজিবিশনে। ওই সময়েই আলাপ শঙ্কর পরিবারের সঙ্গে। কিছুদিন পরেই তিনি উদয় শঙ্করের কাছে তালিম নিতে শুরু করেন। এর পরে তাঁদের বিয়ে হয় ১৯৪২ সালে। গত শতাব্দীর চারের দশক থেকেই উদয় শঙ্কর ও অমলা শঙ্কর জুটি হয়ে ওঠে পৃথিবীর সবচেয়ে বিখ্যাত নৃত্যশিল্পী-দম্পতি জুটির অন্যতম।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিংবদন্তি নৃত্যশিল্পীর প্রয়ানে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন,  আজ কলকাতায় বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী অমলা শঙ্করের প্রয়ানে গভীর শোক প্রকাশ করছি।  নৃত্যের মাধ্যমে তিনি রাজ্য বা দেশের সীমা অতিক্রম করে আন্তর্জাতিক খ্যাতি অর্জন করেছেন। উদয়শঙ্কর- অমলাশঙ্কর নিবেদিত 'কল্পনা' আজও জনপ্রিয়তা হারায়নি।
২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাঁকে 'বঙ্গবিভূষণ' সম্মান প্রদান করে।
অমলাশঙ্করের মৃত্যুতে নৃত্যজগতের অপূরণীয় ক্ষতি হল।
অমি অমলা শঙ্করের পরিবার- পরিজন ও অনুরাগীদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only