শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০

আমফানে ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা যাচাইয়ে শুরু ব্লকভিত্তিক সার্ভে


এস জে আব্বাস, শক্তিগড়

আমফান সরকারি ত্রাণ ও সাহায্য  প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের বদলে অন্যদের হাতে পৌঁছে গেছে– বিরোধীদের এমন অভিযোগের ভিত্তিতে এবার জেলাজুড়ে সরাসরি সার্ভের নির্দেশ দিল নবান্ন। ফলে, বৃহস্পতিবার থেকেই পূর্ব বর্ধমান জেলায় ব্লক জুড়ে শুরু হয়ে গেল এই সার্ভে করার কাজ।

বর্ধমানের অতিরিক্ত জেলাশাসক (সাধারণ) অরিন্দম নিয়োগী জানিয়েছেন, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বুধবার রাতেই এই নির্দেশ এসেছে। এরপরই বৃহস্পতিবার থেকে প্রতিটি ব্লকে ব্লকে আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা অনুসারে সার্ভে করার নির্দেশ জারি করা হয়েছে। সেই কাজ এদিন থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, প্রতিটি ব্লক থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের যে তালিকা রাজ্য সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছে সেই তালিকা অনুসারেই ব্লক পিছু ন্যূনতম ১০০টি বাড়ি সার্ভে করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

রাজ্য সরকার এব্যাপারে যে নির্দেশ জারি করেছে তাতে স্পষ্ট বলা হয়েছে, সরকারের নির্দেশ অনুসারে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরাই যে ক্ষতিপূরণের অর্থ পেয়েছেন তা নিশ্চিত করতেই এই সার্ভে সংক্রান্ত রিপোর্ট দ্রুত পাঠাতে হবে রাজ্যে। উল্লেখ্য, আমফানে  সম্পূর্ণ বাড়ি ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষেত্রে ২০ হাজার টাকা এবং আংশিক ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষেত্রে ৫ হাজার টাকা সরকারিভাবে দেওয়ার কাজ চলছে। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব বর্ধমান জেলায় আমফানে প্রায় ১০৯৪টি বাড়ির সম্পূর্ণ ক্ষতি হয় এবং ১০ হাজারের কাছাকাছি আংশিক বাড়ির ক্ষতি হয়। 

ইতিমধ্যেই ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করে তা রাজ্যে পাঠানোর পর রাজ্য বিপর্যয়  ব্যবস্থাপন দফতরের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের আর্থিক সাহায্য দেবার কাজও শুরু হয়েছে। কিন্তু এরই মাঝে বিরোধীরা অভিযোগ তুলতে শুরু করেছেন, আমফানের ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় প্রচুর ভুয়ো নাম তোলা হয়েছে। এমনকি প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের নাম বাদ দিয়ে নিজেদের পছন্দমত ব্যক্তিদের এই আর্থিক বরাদ্দ পাইয়ে দেওয়া হয়েছে। আর এই কারণেই এবার ব্লক ভিত্তিক প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরাই এই সাহায্য পেয়েছেন কিনা তা খতিয়ে দেখা শুরু হয়েছে।

তবে, জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব বর্ধমান জেলার ক্ষেত্রে এখনও পর্যন্ত আমফানে ক্ষতিপূরণের টাকা না পাওয়া বা অন্য কোনো ধরণের একটাও অভিযোগ আসেনি। বেশিরভাগ আবেদনই এসেছে রাস্তাঘাট মেরামত বা খারাপ থাকা নিয়ে। যেহেতু রাজ্য সরকারের নির্দেশ, তাই সেই নির্দেশ মেনেই বৃহস্পতিবার থেকে এই খতিয়ে দেখার কাজ শুরু হয়েছে। এই কাজে নিয়োজিত রয়েছেন ব্লকের বিপর্যয় ব্যবস্থাপন দফতরের আধিকারিক সহ বিডিও,এসডিও এবং ব্লক স্তরের আধিকারিকরা। স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এই সার্ভের সঙ্গে সঙ্গে প্রাপকদের বাড়ির ছবিও তোলা হচ্ছে ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only