সোমবার, ২৭ জুলাই, ২০২০

করোনার জেরে অবাধ যৌনতায় ভাটা,চিনে সেক্সডল ব্যবসার রমরমা


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে দূরে থাকতে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং মানতে বাধ্য হচ্ছে সবাই। পরস্পরের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখতে হচ্ছে যাতে ভাইরাস সংক্রামিত না হয়। স্বভাবতই দেহব্যবসা– অবাধ যৌনতা এখন অনেকখানি কমেছে। এটা খুব ভালো সামাজিক লক্ষণ হলেও যারা বহুগামী বা যারা বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িত, তাদের কামপ্রবৃত্তিতে লাগাম টেনেছে করোনা। করোনা নামক পৃথিবীর গভীর অসুখে নোংরা প্রবৃত্তির মানুষদের মন খুব খারাপ। ইচ্ছা থাকলেও উপায় নেই। আর্থিক সম্বল থাকলেও তারা তাদের কুপ্রবৃত্তি চরিতার্থ করতে সাহস পাচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়ে এই ধরনের নারী-পুরুষরা সেক্সডল বা সেক্সটয় ব্যবহার করে তাদের যৌন কামনা-বাসনা পূরণ করছে। 

লকডাউন পিরিয়ডে অন্য সব ব্যবসা ঝাড় খেলেও চিন সহ অনেক দেশেই এই পুতুলের ব্যবসা রমরমিয়ে বেড়ে চলেছে। চাহিদার |র্ধ্বগতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতে হিমশিম খাচ্ছে এর নির্মাতা কোম্পানিগুলো। দেখতে হুবহু খেলনা পুতুলের মতো হলেও এগুলোকে নিয়েই নোংরা প্রবৃত্তি চরিতার্থ করছে অনেকে। গতবছর ডিসেম্বরে চিনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথমে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। তারপর দ্রুতগতিতে করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়ে। প্যানডেমিক বা অতিমারী ঘোষণা হওয়ার পর প্রায় সারা বিশ্বেই কমবেশি লকডাউন শুরু হয়। ফলে বহু বড় বড় ব্যবসা বন্ধ হয়ে যায়। 

বিশ্ববাজারে বিপুল ধ্বস নামে। এখনও সেই ক্ষত অক্ষত। ফলে বহু দেশের অর্থনীতির মেরুদণ্ড ভেঙে পড়তে শুরু করলে বাধ্য হয়ে কোনও কোনও দেশ লকডাউন আংশিক শিথিল করে। এদিকে সমীক্ষা বলছে, চিন ও পশ্চিমাবিশ্বে রফতানি পণ্যবাজার ২০ শতাংশ পর্যন্ত কমলেও নোংরা পুতুল বিক্রি বা রফতানি বেড়েছে ৩০ শতাংশ। চিনের সানডংয়ে এই পুতুল নির্মাতা লিবো টেকনোলজি কোম্পানির ম্যানেজার ভায়োলেট ডিউ বলেন, লকডাউনে চাহিদা এত বাড়ছে যে, এই পুতুলের উৎপাদন ২৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি দামও একটু কমানো হয়েছে। ফলে দাম নিয়ে এখন আর কোনও অভিযোগ নেই। সাধারণ মানুষও এই পুতুল কিনতে পারছে। সবথেকে বেশি চাহিদা আমেরিকা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, ইসরাইল,চিনের মতো উন্নত দেশগুলোতে। অথচ ভোগবাদী, বস্তুবাদী ও পুঁজিবাদী এইসব দেশগুলোই আবার মানবতা, নৈতিকতা, মূল্যবোধ ইত্যাদি নিয়ে বড় বড় কথা বলে।  

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only