বুধবার, ৮ জুলাই, ২০২০

মায়ানমারের রাখাইনে এখনও চুপিসারে চলছে বিমান হামলা

রাখাইন, ৮ জুলাই: বিশ্বের চোখে ফাঁকি দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে না জানি কত অভিযান চালিয়েছে মায়ানমারের সেনাবাহিনী। সংখ্যালঘু নাগরিকদের বিরুদ্ধে জাতিগত শুদ্ধিকরণ অভিযান চালিয়ে হাজার হাজার মানুষকে খুন করে গণকবর দেওয়া হয়েছে। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অকথ্য নিপীড়ন ও অত্যাচারের কথা তো গোটা বিশ্বেরই জানা। 

তবে এবার বার্মার শাসকদের বিরুদ্ধে গুরুতর যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ তুলেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। মায়ানমারের সেনাবাহিনী রাখাইন ও চিন রাজ্যেও শিশুসহ অসামরিক নাগরিকদের হত্যা করেছে। রাখাইনে একের পর এক বিমান হামলা চালানো হয়েছে। একে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে তদন্তের জন্য রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের কাছে আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। এ বিষয়ে বুধবার নতুন একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে অ্যামনেস্টি। 

এতে বলা হয়েছে, মার্চ ও এপ্রিলে চিন রাজ্যে বেশ কিছু গ্রামে মায়ানমারের সেনাবাহিনী বোমা হামলা চালিয়েছে এমন নতুন তথ্যপ্রমাণ সংগ্রহ করেছে তারা। এসব হামলায় মারা গেছেন এক ডজনেরও বেশি মানুষ। অ্যামনেস্টিকে একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, ১৪ ও ১৫ই মার্চ পালেত্ব টাউনশিপে বিমান হামলায় মারা গেছেন তার এক চাচা, ভাই ও ওই ভাইয়ের ১৬ বছর বয়সী এক বন্ধু। একই গ্রামের আরেকটি পরিবারের দু’ব্যক্তি বলেছেন, বোমা হামলায় সাত বছর বয়সী একটি বালক সহ মারা গেছেন ৯ জন। নিহত বালকের পিতা অ্যামনেস্টিকে বলেছেন, ‍‌‌‌‌‌‌’আমার পরিবার ধ্বংস হয়ে গেছে।’ 

পালেত্ব এলাকায় ৭ই এপ্রিল আরেক দফা বিমান হামলা চালানো হয়। এতে সাত জন নিহত ও আট জন আহত হন। এসব হামলায় যেহেতু অসামরিক লোকজন মারা গেছেন তাই একে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। ওই অঞ্চলে সেনাবাহিনী এবং আরাকান আর্মির মধ্যে সংঘর্ষের মধ্যে এই হামলা চালানো হয়েছে। উল্লেখ্য, আরাকান আর্মি রাখাইনের বৌদ্ধদের জন্য অধিকতর স্বায়ত্তশাসনের দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। 

এই রাখাইন রাজ্যে বসবাসকারীদের মধ্যে বেশির ভাগই মুসলিম রোহিঙ্গা। এ রাজ্যের সঙ্গে সীমান্ত রয়েছে চিন রাজ্যের, যার বেশির ভাগ মানুষ খ্রিস্টান। গত বছর জানুয়ারিতে মায়ানমারের সেনাবাহিনী ও আরাকান আর্মির মধ্যে সংঘর্ষ বৃদ্ধি পায়। মায়ানমার সরকার তাদেরকে সরকারিভাবে সন্ত্রাসী সংগঠন ঘোষণার পর মার্চে পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only