বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই, ২০২০

মহামারিতে আশার আলো, ডিসেম্বরেই করোনা ভ্যাকসিন!



নয়াদিল্লি,২২ জুলাইঃ কিছুটা আশার আলো দেখিয়েছে অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীরা। করোনা মহামারির অন্ধকার কাটিয়ে টিকা আনার কথা ঘোষণা করেছেন তাঁরা।  অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীদের সেই  ভ্যাকসিন মিলবে ভারতেও।অক্সফোর্ডের এদেশের সঙ্গী সিরাম ইন্সস্টিটিউট এই ঘোষণা করেছে। তারা জানিয়েছে চলতি বছরে ডিসেম্বর মাসে আসতে পারে করোনা প্রতিষেধক। সেক্ষেত্রে নতুন করে আতঙ্ক থেকে বাঁচার স্বপ্ন দেখতে পারেন ভারতীয়রা। উল্লেখ্য, দেশীয় প্রযুক্তিতে ভারতেও তৈরি হচ্ছে করোনার টিকা। অন্যদিকে রাশিয়াও জানিয়েছে আগামী মাসে তারা করোনার ভ্যাকসিন বাজারে আনবে। সব মিলিয়ে নতুন করে আশার আলো সামনে আসছে।

অক্সফোর্ডের গবেষকদের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন বিনামূল্যে পেতে পারে ভারতীয়রা। এমনটাই মনে করছে উৎপাদনকারী সংস্থা সিরাম ইন্সটিটিউট। তাদের মতে সরকার চাইলে তা সবাইকে বিনামূল্যেই দিতে পারে। আর ডিসেম্বর মাসের শুরুতেই এই করোনা ভ্যাকসিন ভারতে চলে আসতে পারে। 

করোনা নিয়ে আশার আলো দেখাচ্ছে অক্সফোর্ড। তারা দাবি করেছে– তাদের তৈরি করা টিকা সম্পূর্ণ নিরাপদ। তাদের প্রাথমিক ট্রায়ালের সাফল্যের পর ভারতে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন তৈরির বরাত পেয়েছে সিরাম ইন্সটিটিউট। আর তারপরই বুধবার এই সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, সরকারের জাতীয় টিকাকরণ প্রকল্পের অংশ করা হবে এই ভ্যাকসিনকে। ফলে ভারতীয়রা বিনামূল্যে এই ভ্যাকসিন পাবে। সরকারি টিকাকরণ স্কিমে সেরামের তৈরি করা ভ্যাকসিন কিনে নেবে কেন্দ্র। আর তা সাধারণ মানুকে দেওয়া হবে। ৫০ কোটি ভ্যাকসিন ভারতকে বিনামূল্যে দেওয়া হবে। 

যদিও সংস্থাটি জানিয়েছে, তারা ভ্যাকসিনের দাম এক হাজার টাকার মধ্যেই রাখতে চায়। সংস্থার তরফে আরও জানানো হয়েছে, তাদের এই ভ্যাকসিনের স্টেজ-থ্রি ট্রায়াল (তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা) হবে ভারতে। প্রায় ৪ হাজার মানুষের উপর এর পরীক্ষা হবে। সেই হিসেবে এই ভ্যাকসিনের উপর ভারতের একটা নৈতিক দাবি থেকেও যাবে। উল্লেখ্য, অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ফেজের ট্রায়ালে দেখা হয়েছে মানুষের শরীরে এই ভ্যাকসিন কীভাবে কাজ করছে। শরীরে এর কোনও খারাপ প্রভাব পড়ছে কি না। আর ফেজ থ্রিতে দেখা হবে করোনার বিরুদ্ধে এই ভ্যাকসিন কতটা কার্যকরী এবং কত সময়ের জন্য কার্যকরী।    

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only