শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০

আমফানে ক্ষতিপূরণ ইস্যুতে বিজেপি’র অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন সুটিয়ার পঞ্চায়েত প্রধান


এম এ হাকিম, বনগাঁ 

উত্তর ২৪ পরগণার গাইঘাটা ব্লকের সুটিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে আমফান ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ ইস্যুতে অনিয়ম ও পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন পঞ্চায়েত প্রধান মিহির বিশ্বাস।

শুক্রবার বিজেপি’র পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ ইস্যুতে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগসহ ৬ দফা দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি দেওয়া হয় পঞ্চায়েত প্রধানের কাছে। এনিয়ে তাঁরা একটি পথসভায় প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেন। সেখানে বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ শান্তনু ঠাকুর ও অন্য বিজেপি নেতারা শামিল হন। 

এনিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তৃণমূল পরিচালিত সুটিয়া পঞ্চায়েতের প্রধান মিহির বিশ্বাস বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্তদের যে তালিকা তৈরি হয়েছে তা ছিল  সর্বদলীয় চার সদস্যের কমিটির তৈরি তালিকা। এতে কোনও রাজনৈতিক রঙ দেখা হয়নি। যে তালিকা তৈরি করা হয়েছে তাতে বিরোধী দলনেতার সই রয়েছে। সেই তালিকাই বিডিও অফিসে পাঠানো হয়েছে। যদি আমার কোনও ভুল হয়ে থাকে তাহলে জানবেন সেই ভুলের অংশীদার বিরোধী দলনেতা বাবলু দাসও।’ 

পঞ্চায়েত প্রধান মিহির বিশ্বাস আরও বলেন, ‘আমি প্রমাণ দেখিয়ে দেব যে বিজেপি দলের সদস্য তাঁর নিকট আত্মীয়রা ক্ষতিপূরণের টাকা পেয়েছেন। যদিও ওই টাকা তাঁদের পাওয়ার কথা নয়। তাঁরা যদি বেশি কিছু বলে আমি নিশ্চয়ই সেই প্রমাণ দেব। লকডাউনের মধ্যে ৩২ টা বুথ সম্বলিত এতবড় পঞ্চায়েতের সমস্ত জায়গায় তদন্ত করে তালিকা করার মত অবস্থা ও পরিস্থিতি ছিল না। সেজন্য যদি কোনও ভুল হয়ে থাকে তাহলে পঞ্চায়েত এলাকায় যতগুলো রাজনৈতিক দল আছে তাদের প্রত্যেকেই সমানভাবে দায়ী।

কারণ বিজেপি, তৃণমূল, সিপিএম যৌথভাবে তালিকা তৈরি করে আমার হাতে দিয়েছে। আমি তাতে কোনও কলম চালাইনি। তাছাড়া বিরোধী দলনেতা বিজেপি’র, তিনি নামের তালিকা দেখে সই করেছেন নিশ্চয়।’ পঞ্চায়েত প্রধান মিহির বিশ্বাস এদিন বিজেপি’র তোলা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only