বুধবার, ১৯ আগস্ট, ২০২০

হঠাৎ নির্বাচন কমিশনারের পদ ছাড়লেন লাভাসা, কারণ নিয়ে শুরু জোর জল্পনা, বিস্তারিত পড়ুন



পুবের কলম ওয়েব ডেস্কঃ এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক বা এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে যোগ দিতে নির্বাচন কমিশনারের সাংবিধানিক পদ ছাড়লেন অশোক লাভাসা। বরিষ্ঠতার জন্য পরবর্তী মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের পদে বসার কথা ছিল তাঁর। এই পরিস্থিতিতে শুধুমাত্র এডিবির ভাইস প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্যই কী ইসির পদ ছাড়লেন, এ নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে ওয়াকিফহাল মহলে। 


গত লোকসভা নির্বাচনের সময় আদর্শ নির্বাচনী বিধিভঙ্গের জন্য মোদি ও অমিত শাহকে দেওয়া ক্লিনচিটের বিরোধিতা করে খবরের শিরোনামে এসেছিলেন লাভাসা। কর্তব্যের খাতিরে প্রধানমন্ত্রী বা তৎকালীন বিজেপি সভাপতিকেও রেয়াত করেননি তিনি। নির্বাচনের পরপরই তার স্ত্রী, পুত্র ও বোন ইনকাম ট্যাক্স ডিপার্টমেন্টের কাছ থেকে নোটিশ পায়। তাদের অবৈধ সম্পত্তি রয়েছে বলে অভিযোগ তোলা হয়। লোকসভা ভোটের সময় মোদি-শাহর বিরোধিতা করার জন্যই এমন অসুবিধার সম্মুখীন হয়েছিলেন বলে অনেকে মনে করেন। সেই লাভাসা মুখ্য নির্বাচনী কমিশনার হওয়ার কথা থাকলেও হঠাৎ এডিবিতে কেন যাচ্ছেন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা থেকেই যাচ্ছে। কেন্দ্র সরকার বা শাসকদলের পক্ষ থেকে কোনো চাপের কথাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না কেউ কেউ। 


মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের পদে ২০২২ সাল পর্যন্ত কার্যকাল ছিল লাভাসার। বিহার– পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, পঞ্জাব,  মণিপুর ও গোয়ায় আসন্ন বিধানসভানির্বাচন তাঁর নেতৃত্বেই হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনি কার্যকাল শেষ হওয়ার আগেই পদত্যাগ করায় পরবর্তী মুখ্য নির্বাচন কমিশনার হতে চলেছেন লাভাসার সহকর্মী সুশীলচন্দ্র। এর আগে ১৯৭৩ সালে নগেন্দর সিং আন্তর্জাতিক ন্যায়ালয়ের প্রধান বিচারপতি হওয়ার জন্য এভাবে কার্যকাল শেষ হওয়ার আগেই পদত্যাগ করেছিলেন। তারপর লাভাসা দ্বিতীয়জন, যিনি এই কাজ করলেন। 


মঙ্গলবারই তিনি রাষ্ট্রপতিকে নিজের পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়ে অনুরোধ করেছেন তাঁর পদত্যাগ যেন এমাসের ৩১ তারিখের মধ্যে গৃহীত হয়। এডিবির সদর দফতর ফিলিপিন্সে। আগামী মাস থেকেই এডিবিতে যোগ দেবেন লাভাসা। গত ১৫ জুলাই লাভাসার নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছিল এডিবি। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only