মঙ্গলবার, ২৫ আগস্ট, ২০২০

যোগী রাজ্যে ফের ‘অনাহারে’ মৃত্যু উত্তরপ্রদেশে ৫ বছরের শিশুকন্যার; নোটবন্দির সময়ও অনাহারে মৃত্যু হয়েছিল ওই পরিবারের আট বছরের ছেলের! বিস্তারিত পড়ুন


 রুবাইয়া, লখনউ:ফের যোগীর রাজ্যে অনাহারে মৃত্যু হল এক বছর পাঁচেকের শিশুর।আর মৃত্যুর পরেই বাড়িতে এলো ৫০ কেজি আটা, ৪০ কেজি চাল, ডাল, রেশনের আরও অনেক সামগ্রী  কিন্তু যখন এসব সামগ্রী আসলো তখন আর শিশুটি বেঁচে নেই। এক সপ্তাহ ধরে বাড়িতে এক মুঠো খাবারও ছিল না। অতএব  অনাহারে ধীরেধীরে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে পাঁচ বছরের ছোট্ট মেয়ে সোনিয়া । এমনকি খিদের চোটে একটা সময় গা কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসে খুদের। কিন্তু পয়সার অভাবে চিকিৎসাও হয়নি সময় মতো। এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) আগ্রার বরেলি আহীর ব্লকের নগলা বিধিচন্দ গ্রামে।আর শিশুটির মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই স্থানীয় প্রশাসন ছুটে যায় তার বাড়িতে। সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা করা হয় চাল, ডালের। সরকারি অনুদান চলে যায়। কিন্তু তাতে আর লাভ কী! মৃত শিশুটির মা শীলা দেবী জানিয়েছেন, তিনি দিনমজুরি করে সংসার চালান। তাঁর স্বামীর শ্বাসকষ্ট রয়েছে। কাজ করতে পারেন না। কিন্তু লকডাউনের পর থেকে কাজ নেই। গত এক মাস ধরে বাড়িতে একটা দানাপানিও নেই। পড়শিরা সাহায্য করায় ১৫ দিন মতো খাবার জুটেছিল। কিন্তু গত সাত দিন যাবৎ পড়শিরাও মুখ ফিরিয়ে নেয়।ফলে বেঁচে থাকাই দায় হয়েছিল। মেয়েটি গত কয়েকদিন ধরে কিছু খায়নি। তার উপর জ্বর হয়েছিল। চিকিৎসা করানোর ও ওষুধ কেনারও টাকা ছিল না।অন্যদিকে প্রশাসন জানিয়েছে মেয়েটির মৃত্যু খিদের জ্বালায় হয়নি। হয়েছে জ্বর ও ডায়েরিয়ায়। বাড়িতে লাইটের বিল এসেছিল সাত হাজার টাকা। হতদরিদ্র পরিবার সেই টাকা শোধ দিতে পারেনি। ফলে মাস তিনে আগে বিদ্যুৎ বন্টন সংস্থা থেকে এসে লাইন কেটে দিয়ে যায়। শীলা দেবী জানিয়েছেন, তাঁদের পরিবারে কারও রেশন কার্ড হয়নি। উল্লেখ্য এর আগে নোটবন্দির সময় ওই মহিলার আট বছরের ছেলেও না খেতে পেয়ে মারা গিয়েছিল।সম্প্রতি পালিত হল ভারতের ৭৪ তম  স্বাধীনতা দিবস। আর এইদিকে প্রত্যেক বছরের ন্যায় সেপ্টেম্বরে পালিত হওয়া "জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ"ও একেবারে দোরগোড়ায় হাজির। ধুমধাম করে হয়তোবা পালিত হবে  অপুষ্টির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কথা৷কিন্তু তাতে একবারও বলা হবে তো সোনিয়াদের মতো শিশুদের কথা,যারা অনাহারে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েছিল !!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only