মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০

মৌসুনি দ্বীপের চর থেকে এক মৎস্যজীবীর দেহ উদ্ধার ! এক নজরে পড়ুন

 

সামিম আহমেদ, কাকদ্বীপ : বকখালির জম্বুদ্বীপের কাছে ডুবে যায় এফবি প্রসেনজিৎ ট্রলার সহ দুই মৎস্যজীবী সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন খোঁজ মেলেনি এদিন দুপুরে নামখানার মৌসুনি দ্বীপের চরে সমুদ্রের ঢেউয়ে ভেসে আসা এক মৎস্যজীবীর দেহ উদ্ধার করে ফ্রেজারগঞ্জ উপকূল থানার পুলিশ পরে মৃত মৎস্যজীবীর পরিবারের লোকজনেরা কাকদ্বীপ হাসপাতাল মর্গে এসে দেহটিকের শনাক্ত করেন পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম প্রদীপ বিশ্বাস (৩০) তিনি কাকদ্বীপের পশ্চিম গঙ্গাধরপুরের বাসিন্দা বাকি নিখোঁজ দুই মৎস্যজীবী কৃষ্ণ দাস (৪৮) শিবু বিশ্বাসের (৫৫) খোঁজে সমুদ্রে তল্লাশি চালাচ্ছে উপকূলরক্ষী বাহিনী সহ কাকদ্বীপের মৎস্যজীবী সংগঠনের মৎস্যজীবীদের দল ফ্রেজারগঞ্জ উপকূল থানার পুলিশ 



সুন্দরবন সামুদ্রিক মৎস্যজীবী শ্রমিক ইউনিয়নের সম্পাদক সতীনাথ পাত্র বলেন, ‘শনিবার বিকেল নাগাদ এফবি প্রসেনজিৎ নামক ট্রলারটির দুর্ঘটনার খবর পাই সেই ট্রলারটিতে ১৫ জন মৎস্যজীবী ছিলেন তারমধ্যে ১২ জনকে উদ্ধার করা গেলেও বাকি তিনজনের কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি সোমবার একজনের দেহ উদ্ধার হলেও এখনও নিখোঁজ দুই মৎস্যজীবীর খোঁজে গভীর সমুদ্রে তল্লাশি চালানো হচ্ছেতবে দুর্ঘটনাগ্রস্থ ট্রলারটি জম্বুদ্বীপের পূর্বদিকে সমুদ্রে ডুবে রয়েছে বলে লোকেশান করা গিয়েছে ট্রলারটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে কাকদ্বীপের মৎস্যজীবী সংগঠন মৃত নিখোঁজ মৎস্যজীবীদের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে


অন্যদিকে, কাকদ্বীপে এদিন মৎস্যজীবীদের গ্রাম থমথমে পশ্চিম গঙ্গাধরপুরের বাসিন্দা বছর তিরিশের যুবক প্রদীপ বিশ্বাসের পরিবার বলতে বৃদ্ধ মা, স্ত্রী সাড়ে তিন বছরের একমাত্র কন্যা সন্তান অসুস্থ মায়ের চিকিৎসার খরচ জোগাড় করতে গভীর সমুদ্রে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন প্রদীপ দুর্ঘটনার খবর আসার পর থেকে বাড়ি জুড়ে কান্নার রোল প্রদীপের স্ত্রী আরতি বিশ্বাস কন্যা সন্তানকে কোলে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন ছেলের শোকে বিছানা থেকে উঠতে পারেননি প্রদীপের অসুস্থ মা ঋতু বিশ্বাস

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only