বুধবার, ১৯ আগস্ট, ২০২০

করোনা মুক্ত হওয়ার পরেও নতুনভাবে সৃষ্টি হচ্ছে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা ! পড়ুন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেদের পরামর্শ

   

পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক :  করোনা চিকিৎসার পরে করোনা পরীক্ষার ফল ‘নেগেটিভ’ আসার পরেও অনেক মানুষ নতুনভাবে অন্য নানা শারীরিক  সমস্যায় আক্রান্ত হচ্ছেন যা কার্যত উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, করোনায় গুরুতর আক্রান্তরা ছাড়াও, সামান্য এবং মাঝারি উপসর্গ থাকা ব্যক্তিদেরও করোনামুক্তির পরে ক্লান্তি, উদ্বেগ, অবসাদ, গা-হাত-পায়ে ব্যথা, শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এরকমই কিছু সমস্যা নিয়ে গত (সোমবার) রাতে দিল্লির ‘এইমস’-এর পোস্ট-কোভিড ওয়ার্ডে  ফের ভর্তি হয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহও। সম্প্রতি তিনি গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পরে করোনা মুক্ত হয়েছিলেন।   

বিশেষজ্ঞদের মতে,   করোনাভাইরাসের কারণে ফুসফুস, হার্ট, মানসিক স্বাস্থ্যে বড়সড় প্রভাব পড়ছে। বাড়ছে দীর্ঘস্থায়ী ঝুঁকিও। কোলকাতার ফর্টিস  হাসপাতালের ফুসফুস রোগ বিভাগের প্রধান, পালমনোলজিস্ট রাজা ধর বলেন, 'গুরুতর আক্রান্তরা ছাড়াও, অনেক মাইল্ড, মডারেট রোগীরও ফুসফুসে ক্ষত হয়ে আইএলডি বা ইন্টারস্টিশিয়াল লাং ডিজিজ হয়ে যাচ্ছে। ফাইব্রোসিস হয়ে ফুসফুসের সংকোচন-প্রসারণের ক্ষমতা কমে যাচ্ছে। ফলে শ্বাসকষ্টের সমস্যা থাকছে। এর পাশাপাশি হৃদযন্ত্রও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, হৃদস্পন্দন অনিয়মিত হচ্ছে অনেকের।'

মহারাষ্ট্রের মুম্বাইয়ের কিছু হাসপাতালে ৪০ শতাংশ রোগী ফুসফুসে ফাইব্রোসিস সমস্যা নিয়ে ফিরে এসেছেন বলে জানা গেছে। তাঁদের শ্বাসকষ্ট ও শুকনো কাশি জাতীয় সমস্যা রয়েছে।

বম্বে হাসপাতালের ডাঃ গৌতম ভানুশালী বলেন, 'রোগীর রিপোর্ট নেতিবাচক আসার পরে পরবর্তীতে ফুসফুসের ফাইব্রোসিসের মতো সমস্যা নিয়ে আসছেন যা এক্স-রে এবং সিটি স্ক্যানের পরে নিশ্চিত হচ্ছে।

সাইফি হাসপাতালের ডাঃ দীপেশ আগরওয়ালের মতে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ রোগী এই সমস্যায় ভুগছেন। কিছু রোগীর হার্টের সমস্যা আছে।

কলকাতার বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে করোনামুক্ত রোগীরা কেমন আছেন জানতে ফলোআপ আউটডোর চালু হয়েছে। প্রতি বুধবার সেখানে গড়ে ৫০ জন করে রোগী দেখছেন আইডি’র বিশেষজ্ঞরা। কোভিড চিকিৎসার নোডাল কর্মকর্তা ও ফুসফুস রোগ বিশেষজ্ঞ কৌশিক চৌধুরী বলেন, 'কোভিডের কারণে যাঁদের নিউমোনিয়ার সংক্রমণ হয়েছিল, তাঁদের ২০ শতাংশের ফুসফুস সমস্যা করছে।’ এসব রোগীদের পোস্ট ট্রমাটিক স্ট্রেস ডিসঅর্ডারও (পিটিএসডি) দেখা যাচ্ছে বলেও ডা. কৌশিক চৌধুরী মন্তব্য করেন। 

দিল্লি সরকার পরিচালিত রাজীব গান্ধী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল বুধবার থেকে কোভিড পরবর্তী ক্লিনিক শুরু করছে, এটি করোনার ভাইরাস থেকে মুক্ত হওয়া রোগীদের 'সহায়তা' করবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only