বুধবার, ২৬ আগস্ট, ২০২০

মুখেই জটিল অঙ্কের জলদি সমাধান! শকুন্তলার দেবীর পর ‘মানব ক্যালকুলেটর’ ভানু


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: মুখেই জাটিল অঙ্কের সমাধান করে বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছিলেন শকুন্তলাদেবী। সেই শকুন্তলাদেবীকে স্মরণ করালেন হায়দরাবাদের বছর কুড়ির নীলকান্ত ভানু প্রকাশ। কোনও ক্যালকুলেটর, কম্পিউটার ছাড়াই নিমেশে মুখে মুখেই করে ফেলছেন জটিল কঠিন অঙ্কের সমাধান। এই বিরল প্রতিভার জোরে প্রচুর পুরস্কার ও খেতাব পেয়েছেন নীলকান্ত। ‘মাইন্ড স্পোর্টস অলিম্পিয়াডের মেন্টাল ক্যালকুলেশন ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথমবার ভারতকে সোনা এনে দিয়েছেন তিনি।  

হায়দরাবাদের বাসিন্দা নীলকান্ত দিল্লি ইউনিভার্সিটির সেন্ট স্টিফেন কলেজে অঙ্কে অনার্স করছেন। মাত্র কুড়ি বছর বয়সেই চারটি বিশ্বরেকর্ড করে ফেলেছেন তিনি। ৫০টি লিমকা রেকর্ড রয়েছে তাঁর দখলে। কম্পিউটারের থেকেও তাড়াতাড়ি অঙ্ক কষে বিশ্বে সাড়া ফেলে দিয়েছেন তিনি। শুধু বড়বড় সংখ্যার যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ নয়, শতকরার হিসেবে বড় সংখ্যার বর্গমূল বের করা, সবটাই তাঁর কাছে জলভাত। 

বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে বিচারকরা দেখেছেন, কম্পিউটারের চেয়েও তাড়াতাড়ি জটিল অঙ্ক কষতে পারেন নীলকান্ত। চলতি বছরের ভার্চুয়াল মাইন্ড স্পোর্টস অলিম্পিয়াডের প্রতিযোগিতায় ১৩টি দেশের মোট ৩০ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন। তাতে যুবকদের পাশাপাশি প্রবীণ তাবড় অঙ্ক শিক্ষকরাও ছিলেন। তাঁদের সকলকে হারিয়ে সেরার শিরোপা ছিনিয়ে নিয়েছেন নীলকান্ত। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only